বাবা করেন কুলির কাজ, বকলম মা! NEET এক্সামে অবিশ্বাস্য ফল নদিয়ার সাকিরুলের

একজন ছাপোষা দিন মজুরের ছেলে হয়ে সর্বভারতীয় NEET পরীক্ষায় সাফল্য অর্জন করে সকলকে চমকে দিল এক যুবক। কেউ হয়তো ভাবতেও পারেননি যে এটা হবে। সারা দেশে ১৭তম স্থান অর্জন করে তাক লাগালেন তেহট্টের (Tehatta) আশরাফপুরের সাকিরুল সেখ। হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন। তাঁর সাফল্যে গর্বিত তেহট্টের মানুষজন।

সবথেকে বড় কথা, নেট-এর মতো মতো কঠিন পরীক্ষায় প্রথমবার বসেই সাফল্য ছিনিয়ে নিয়েছে সাকিরুল। তবে পথচলাটা কিন্তু সহজ ছিল না সাকিরুলের। অভাব, অনটন ছিল নিত্য সঙ্গী। জানা গিয়েছে, তেহট্টের শ্যামনগর সিদ্ধেশ্বরী ইনস্টিটিউশন থেকে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেন বহরমপুর কৃষ্ণনাথ কলেজে ভর্তি হয় সাকিরুল। এরপর সেখানে রসায়নে ৮৫ শতাংশ নম্বর পেয়ে বিএসসি পাস করেন। এরপর কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএসসি শেষ করেই নেটের প্রস্তুতি শুরু করেন।

   

জীবনে বড় কিছু করে দেখানোর স্বপ্ন বুনেছিলেন সাকিরুল। আর এও স্বপ্নের এক ধাপ এগিয়েছেন সাকিরুল। এদিকে ছেলের এহেন সাফল্যে বেকে খুশি পেশায় দিনমজুর সমীর মণ্ডল ও সাকিরুলের মা। সাকিরুলের এহেন সাফল্যের পেছনে রয়েছে বিভিন্ন সমাজ সেবী সংস্থা এবং শিক্ষকরা।

নিজের সাফল্য প্রসঙ্গে বড় মন্তব্য করেছেন সাকিরুল। সে জানায়, “পড়াশোনার প্রতি আগ্রহ থাকলেও এতদূর পৌঁছতে পারব ভাবতেই পারেনি। ছোট থেকে ইচ্ছে ছিল পড়াশোনা করে একটা সরকারি চাকরি করে পরিবারের পাশে দাঁড়াবে। তবে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করার পর কেমিস্ট্রি নিয়ে বিএসসি, এমএসসি শেষ করে নেট পরীক্ষার প্রস্তুতি শুরু করেছিলাম।” অন্যদিকে সাকিরুলের বাবা সমীর মণ্ডল জানিয়েছেন,  গবেষণা করে শুধু আমাদের জন্য নয়, দেশের জন্য কাজ করুক ছেলে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর