অন্যের জমিতে দিনমজুরি করে পড়াশোনা, সকাল ৫ টায় উঠে দৌড়! BSF-এ সুযোগ পেল সন্ধ্যা

পাটনাঃ হিন্দুশাস্ত্র মতে মহিলারা মা অন্নপূর্ণার প্রতিরূপ। তবে এবার বিহারে সেই অন্নপূর্ণাই ধরলেন দেশের হাল। গ্রামের মেয়ে সৈনিক হয়ে ফিরে এলে তাকে ঘোড়ায় চড়িয়ে মিছিল বের করে স্বাগত জানান গ্রামবাসীরা। বাজতে থাকে ঢাক, ঢোল,কাঁসর। যেন দুর্গাপুজোই শুরু হয়েছে। এই মিলিটারি কন্যাকে তার বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয় ঘোড়ায় চড়িয়ে।

শুধু তাই নয় তারই সাথে দেখা গেল অনেকেরই আনন্দের নাচ। খোদ মিলিটারি কন্যাকেও দেখা গেছে কোমর দোলাতে। ঘটনাটি বিহারের রাজগড় জেলার পিপল্যা রসোদা গ্রামের। গ্রামেরই মেয়ে সন্ধ্যা এই বছর নির্বাচিত হয়েছেন সীমা সুরক্ষা বাহিনী বিএসএফ এ। দীর্ঘ ৮মাস প্রশিক্ষণ সেরে বিএসএফ এর ইউনিফর্ম পড়ে গ্রামে ফিরতে আপ্লুত সারা গ্রামের মানুষ।

   

20211226 011258.jpg

তার এই সাফল্য উদযাপন করে সারা গ্রাম। পরিবার তো বটেই গ্রামের মেয়েকে এভাবে ইউনিফর্মে দেখে আবেগপ্রবণ সারা গ্রামের মানুষই। তার সাফল্য এভাবে পুরো গ্রামকে উদযাপিত করতে দেখে আবেগ প্রবন হয়ে পড়েন সন্ধ্যা নিজেই। তিনি বলেন যে, এই মুহূর্তগুলি তার জন্য বিশেষভাবে স্মরণীয় রইবে। তাদের গ্রামের প্রায় প্রত্যেকেই নিজেদের রুজিরুটির জন্য করেন শ্রমিকের কাজ। তার বাবা দেবচাঁদ ভিলালাও শ্রমিকের কাজ করেই নিজের সংসার চালান। পরিবারের আর্থিক অবস্থা খারাপ থাকায় সন্ধ্যা নিজেও অন্যের মাঠে কাজ করতেন।

গতবছর এপ্রিলে দেবচাঁদের মেয়ে সন্ধ্যা ভিলালা যোগ দিয়েছিলেন বিএসএফে। এজন্য তাকে করতে হয় কঠোর পরিশ্রম। অনেক পরিশ্রম করে তবেই তিনি উত্তীর্ণ হন লিখিত এবং শারীরিক পরীক্ষাতে। এরপর প্রশিক্ষণের জন্য পাড়ি জমান রাজস্থানে। প্রশিক্ষণ শেষে বাড়ি ফিরে এসে তাকে নিয়ে আনন্দে ভাসে পুরো গ্রাম। সাদর অভ্যর্থনায় স্বাগত জানানো হয় তাকে। বর্তমানে তিনি ভুটান সীমান্তে সীমান্ত প্রহরীর কাজে কর্মরত।

সম্পর্কিত খবর