মাত্র ১৭ হাজার টাকা দিয়ে শুরু করুন এই ব্যবসা, প্রতিমাসে হবে বাম্পার আয়

অনেকেই নিজের ব্যাবসা (Business) শুরু করতে আগ্রহী। কিন্তু কারও ব্যাবসার ধারণা নেই তো কেও মূলধনের অভাবে পিছিয়ে যান। তাই সারাজীবন কর্মচারী হিসেবে না থেকে নিজের ব্যবসা শুরু করতে চাইলেও সেই লক্ষ্য অধরা রয়ে যায়। তবে আজ আমরা এমন একটি ব্যাবসায়িক ধারণার কথা বলতে চলেছি যেখানে আপনি ন্যূনতম বিনিয়োগই বিরাট রোজগার করতে পারেন।

আজ আমরা যে ব্যাবসার সম্পর্কে আপনাদের বলতে চলেছি এটি হলো মিল্কশেকের ব্যবসা। এখানে আপনি খুব কম বিনিয়োগ করেই দারুণ রিটার্ন পাবেন। তো চলুন দেখে নেওয়া যাক কত বিনিয়োগ করতে হবে বা কিভাবে শুরু করবেন এই ব্যবসা।

কী কিনতে হবে প্রথমেই : ব্যবসা শুরু করার জন্য আপনার প্রথমেই প্রয়োজন একটি ভালো কোয়ালিটির মিক্সার গ্রাইন্ডার। সাথে দরকার কিছু বোতল এবং গ্লাসের। এবার আপনি নিজের ব্যাবসার জন্য একটি লোগো তৈরি করুন। এছাড়া ব্যবসাকে বাড়াতে চাইলে নিজের GST নাম্বার করিয়ে নেওয়া অত্যাবশ্যক।

কত বিনিয়োগ করতে হবে প্রথমে : মিক্সার গ্রাইন্ডারের দাম প্রায় ৩,৫০০ টাকা। ১০০০ টি বোতল অর্ডার করলে বোতল প্রতি ৮ টাকার হিসেবে ৮০০০ টাকা দিতে হবে আপনাকে। এছাড়া আপনাকে নিজের লোগো তৈরি করতে ২,০০০ টাকা খরচ করতে হবে আর সেই লোগো বোতলে ছাপাবার জন্য প্রতি বোতলে ৩ টাকা খরচ। সেই হিসেবে লোগো বোতল বা গ্লাসে ছাপাবার জন্য ৩,০০০ টাকা দিতে হবে আপনাকে। এছাড়া GST এর জন্য ৫,০০ টাকা খরচ করতে হবে।

ব্যাস এবার নিজের ব্যবসা শুরু করার পর আপনি বিভিন্ন খাবার ডেলিভারী সংস্থার সাথে যোগ দিন। আপনাকে এবার নিজের নাম নথিভুক্ত করতে হবে Zomato, Swiggy, Uber it, Foodpanda-এর মতো ফুড ডেলিভারি কোম্পানির অ্যাপে। শুরু করার জন্য আপনার মোট খরচ পড়ছে ১৭,০০০ টাকা।

এবার আপনি কাস্টমারদের আকৃষ্ট করতে প্লেইন মিল্কশেক, কোল্ড কফি, চকোলেট মিল্কশেক, ম্যাঙ্গো মিল্কশেক, স্ট্রবেরি মিল্কশেক ইত্যাদি বাজারের চেয়ে কমদামে বিক্রি করতে শুরু করুন। মোটামুটি ১০০ থেকে ১৫০ এর মধ্যে দাম রাখুন তাহলেই হবে।

milkshake

এইভাবে এগিয়ে গেলে আপনি প্রথম থেকেই দারুণ উপার্জন করতে পারবেন। প্রথমে একটু সস্তায় মানুষের কাছে বিখ্যাত হয়ে গেলেই ধীরে ধীরে বিরাট উপার্জন হতে পারে আপনার।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button