১৯ বছর বয়সে একটি ট্রাক দিয়ে শুরু করেন ব্যবসা, আজ ৬০০ কোটি টাকার কোম্পানির মালিক

চোখে যদি স্বপ্ন থাকে এবং মনে আত্মবিশ্বাস, তাহলে সফলতার শিখরে ওঠা শুধু সময়ের অপেক্ষা। মানুষ যে চাইলে সমস্তকিছু করতে পারে তার প্রমাণ মেলে বিজয় সংকেশ্বরের জীবন কাহিনী থেকে। মাত্র ১৯ বছর বয়সেই স্বপ্ন দেখেছিলেন তিনি, আজ ৬৫ বছর বয়সে তার সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে।

আমরা আজ ভিআরএল লজিস্টিকসের প্রতিষ্ঠাতা বিজয় সংকেশ্বরের কথা বলছি। উত্তর কর্ণাটকের একটি মধ্যবিত্ত ব্যবসায়ী পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। বিজয়রা ছিলেন সাত ভাইবোন, তার মধ্যে বিজয় চতুর্থ। তাঁর পরিবার কাজ ছিল বই ছাপা, বই প্রকাশ করা। এমতাবস্থায় মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষা শেষ হলে উচ্চ শিক্ষার জন্য একটি ভালো কলেজে ভর্তি হন তিনি। পড়াশোনা শেষ হলে তার বাবা তাকে পারিবারিক ব্যবসায় যোগ দিতে বলেন, কিন্তু তার লক্ষ্য যে অন্য ছিল সেকথা তখনই তার বাবা বুঝতে পারেননি।

১৯৬৬ সালে মাত্র ১৬ বছর বয়সেই বিজয় একটি কারখানার দায়িত্ব পেয়েছিলেন। তার অধীনে ছিল একটি মেশিন এবং দুইজন শ্রমিক। এরপর সেখানে কিছুটা সফল হলেও তিনি সেই ক্ষেত্র থেকে বেরিয়ে এসে পরিবহন সেক্টরে নিজের ব্যবসা শুরু করার সিদ্ধান্ত নেন। শুরুর দিকে অনেক সংগ্রাম করতে হয় তাকে। বহু দুর্ঘটনার সম্মুখীন হয়ে হয়েছিল সেই সময়। কিন্তু তিনি নিজের লক্ষ্যে অবিচল থেকে পৌঁছে যান নিজ লক্ষ্যে।

vijay sankeshwar success

পরিবহন ব্যবসা শুরু করেন ১৯৭৬ সাল নাগাদ, নাম দেন ভিআরএল লজিস্টিকস। সেইসময় মাত্র একটি ট্রাক ছিল তার কাছে। ধীরে ধীরে নিজের ব্যবসা বাড়তে থাকেন তিনি। অনেক কঠিন পরিস্থিতি পেরিয়ে ১৯৯৯০ সাল নাগাদ তার বার্ষিক রোজগার দাঁড়ায় ৪ কোটি টাকা। এই সাফল্যের পর তিনি নিজের কুরিয়ার সার্ভিস শুরু করেন কর্ণাটকে। আর আজ তার সেই কোম্পানি ভারতের আটটি রাজ্যে ৭৫ টি রুটে প্রায় ৪০০ টি বাস পরিচালনা করে। এছাড়াও সম্প্রতি তিনি তার ছেলে আনন্দের সাথে মিলে আগামী তিন বছরে বিমান পরিবহনের ব্যবসায় ১৩০০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি যে, বিজয় লিমকা বুক অফ রেকর্ডসে সবথেকে বেশি যানবাহনের থাকার জন্য নিজের নামও লিখিয়েছে ইতিমধ্য।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button