আশঙ্কাই হল সত্যি, BCCI-কে চরম সিদ্ধান্তের কথা জানালেন বিরাট কোহলি

যেটা আশঙ্কা করা হচ্ছিল শেষ পর্যন্ত সেটাই সত্যি হল। ভারত-ইংল্যান্ডের টেস্ট সিরিজে বিরাট কোহলিকে (Virat Kohli) দেখার শেষ আশাও চুরমার হয়ে গিয়েছে। সিরিজের বাকি তিনটি ম্যাচে খেলবেন না বিরাট। ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডকে (Board of Control for Cricket in India) এ বিষয়ে জানিয়েছেন তারকা ব্যাটসম্যান। প্রথম ও দ্বিতীয় টেস্টে কোহলি খেলেননি। তৃতীয় ও চতুর্থ টেস্টেও তিনি বাইরে থাকতে পারেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছিল। তবে পঞ্চম টেস্টে প্রত্যাবর্তনের আশা থাকলেও এবার তা আর হবে না।

সিরিজের তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম টেস্টের জন্য ক্রিকেট প্রেমীরা টিম ইন্ডিয়ার (India national cricket team) ঘোষণার অপেক্ষায় ছিলেন বেশ কয়েকদিন ধরেই। শোনা যাচ্ছে, বিরাট কোহলির খেলার ব্যাপারে স্পষ্ট ধারণা না থাকায় এই ঘোষণা ক্রমে দেরি করা হচ্ছে। খবরে বলা হয়েছে, শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) কোহলি BCCI-কে জানিয়ে দেন, আগামী তিন ম্যাচে খেলতে পারবেন না তিনি। শুক্রবার নির্বাচক কমিটির বৈঠকও হয়েছে।

   

ফলে ৫ ম্যাচের এই সিরিজে কোনো ম্যাচ খেলতে পারবেন না কোহলি। ২০১১ সালে টেস্ট অভিষেক হওয়া বিরাট কোহলি তাঁর পুরো ক্যারিয়ারে প্রথমবার এমন কোনো সিদ্ধান্ত নিলেন। এই প্রথম ঘরের মাঠে কোনও টেস্ট সিরিজে একটিও ম্যাচ খেলবেন না কোহলি। এর আগে বেশ কয়েকবার এমন ঘটনা ঘটেছে, যখন কোহলি টেস্ট সিরিজে একটি ম্যাচও খেলতে পারেননি, তবে প্রথমবারের মতো তিনি ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজ না খেলে দলের বাইরে থাকছেন।

টেস্ট সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচের দলে জায়গা পেয়েছিলেন ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক কোহলি। তিনি দলের সাথে হায়দরাবাদে গিয়েছিলেন, একদিনের জন্য প্রশিক্ষণ শিবিরেও অংশ নিয়েছিলেন। এরপর ২২ জানুয়ারি রাম মন্দির প্রাণ প্রতিষ্ঠানে যোগ দেওয়ার কথা থাকলেও তিনি আসেননি এবং সেদিনই বিসিসিআই ঘোষণা করে যে কোহলি দুটি ম্যাচ থেকেই তবে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) তাদের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছিল যে পারিবারিক জরুরি অবস্থার কারণে কোহলি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এবং অধিনায়ক রোহিত শর্মা এবং কোচ রাহুল দ্রাবিড়ের সাথেও এ বিষয়ে কথা বলেছেন।

সম্পর্কিত খবর