নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামে …! ফাইনাল নিয়ে বড় মন্তব্য অশ্বিনের, শোরগোল তুঙ্গে

বড় প্রশ্ন তুললেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। ফাইনাল ম্যাচ বারবার ইংল্যান্ডের মাঠেই কেন আয়োজন করা হবে? প্রশ্ন তুলেছেন অশ্বিন। অশ্বিনের বক্তব্য, বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের আগের দু’টো ফাইনাল হয়েছে ইংল্যান্ডে। এবারেও ইংল্যান্ডে ফাইনাল হওয়ার কথা রয়েছে। নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামে কি ফাইনাল আয়োজন করা যেত না? উচিৎ প্রশ্ন করেছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন।

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সদ্য টেস্ট সিরিজ জিতেছে ভারত। উপমহাদেশীয় উইকেটে ইংল্যান্ডের ব্যাটিং কতটা ভঙ্গুর সেটা আরও একবার দেখিয়ে দিয়েছে ভারত। সিরিজে প্রথম ম্যাচ ইংল্যান্ড জিতেছিল। তারপরের চার ম্যাচ ধারাবাহিকভাবে জিতে নেয় ভারত। রবিচন্দ্রন অশ্বিন, কূলদীপ যাদবদের বিরুদ্ধে দাঁড়াতেই পারেননি ইংল্যান্ডের বেশিরভাগ ব্যাটসম্যান। ইংল্যান্ডকে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে হারিয়ে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ক্রম তালিকার পয়লা নম্বরে উঠে এসেছে টিম ইন্ডিয়া। এর আগে দু’বার চ্যাম্পিয়নশিপ জেতার খুব কাছে পৌঁছে গিয়েছিল ভারত। হেরেছিল ফাইনালে।

   

অশ্বিনের প্রশ্ন ন্যায্য। ইংল্যান্ডে মূলত পেস বোলাররা সুবিধা পেয়ে থাকেন। ভারী আবহাওয়া ও ঘাসে ঢাকা পিচে বলের মুভমেন্ট হয় বেশি। নিজেদের মাটিতে ইংল্যান্ড বরাবর ভয়ঙ্কর। স্লো, স্পিন উইকেটে দুর্বল। ক্রিকেট মানে তো শুধু ইংল্যান্ডের মনোরম মাঠ নয়। বিশ্বের একাধিক প্রান্তে ভালো ভালো মাঠে রয়েছে। সেখানেও ফাইনাল বা বড় কোনও ম্যাচ আয়োজন করা যেতেই পারে। বিশেষত ভারত কিংবা অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশে ক্রিকেটের মেগা ইভেন্ট আয়োজন করা বড় ব্যাপার নয়। আগেও আয়োজন করা হয়েছে সফলভাবে।

অশ্বিন বলেছেন, “শেষ দু’টি ডব্লিউটিসি ফাইনাল হয়েছিল ইংল্যান্ডে। ভেন্যু পরিবর্তন করা কি এবার জরুরি নয়? ভারত বা অস্ট্রেলিয়ায় ফাইনাল ম্যাচ কেন আয়োজন করা হবে না? আমাদের দেশে বিশাল নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়াম রয়েছে। সেখানে অনায়াসে আরও একটি দুর্দান্ত ফাইনাল আয়োজন করাই যায়। এ বিষয়ে আপনারা কী বলেন? কেউ-বা টেবিল টপারদের ঘরের মাঠে খেলার পরামর্শ দিয়েছেন। এটাও একটা ভেবে দেখার মতো বিষয়। তবে জুনে অস্ট্রেলিয়ার আবহাওয়া কিছুটা নিস্তেজ থাকে। তাই এ ব্যাপারে আমি কিছু বলতে। চাই না।”

২০২১ সালের বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল হয়েছিল ভারত ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যে, সাউদামটনে। ২০২৩ সালে ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে ফাইনাল ম্যাচ হয়েছিল কেনিংটন ওভালে। ২০২৫ সালের টেস্ট ফাইনাল লর্ডসে হওয়ার কথা রয়েছে।

ছোটোবেলা থেকে খেলাধুলোর প্রতি ভালোবাসা। এখন পেশা। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে লিখছে বিগত কয়েক বছর ধরে।

সম্পর্কিত খবর