সেমিফাইনালের আগেই বড় সুখবর পেয়ে গেল ইস্টবেঙ্গল! আনন্দে লাফাচ্ছে হাল-হলুদ শিবির

খেতাব জয়ের লক্ষ্যে দৌড়াচ্ছে লাল হলুদ ব্রিগেড। মোহন বাগান সুপার জায়ান্টকে (Mohun Bagan Super Giant) হারিয়ে মোমেন্টাম পেয়ে গিয়েছে ইস্টবেঙ্গল (East Bengal FC)। জামশেদপুর এফসিকে (Jamshedpur FC) হারাতে পারলেই দল চলে যাবে কলিঙ্গ সুপার কাপের আরও কাছে। বড় ম্যাচ জেতার আনন্দের মধ্যে লাল হলুদ জনতার জন্য রয়েছে আরও একটা বড় খবর। সুপার কাপে জামশেদপুর এফসির বিরুদ্ধে ম্যাচে নামার আগে এই খবর ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের মনোবল আরও বাড়াবে।

সুপার কাপের গ্রুপ পর্যায়ে অপরাজিত থেকেছে ইস্টবেঙ্গল। তিন ম্যাচের তিনটি ম্যাচেই দল জিতেছে। যার মধ্যে একটা ছিল ডার্বি। বাগানকে ৩ গোল দিয়েছিল ইস্টবেঙ্গল। ডুরান্ড কাপের ডার্বির মতো কলিঙ্গ সুপার কাপের ম্যাচেও মোহন বাগান সুপার জায়ান্টকে হারিয়েছে ইস্টবেঙ্গল। এই ম্যাচেও বাগানের জালে বল জড়িয়েছেন নন্দ কুমার শেখর। বাকি দুটো গোল ক্লেইটন সিলভার।

   

ইস্টবেঙ্গলের ক্যাপ্টেন ক্লেইটন সিলভা। গত মরসুমে লাল হলুদ জার্সি পরে বইয়ে দিয়েছিলেন গোলের বন্যা। এবারের মরসুমের শুরুর দিকে তেমন ফর্মে ছিলেন না। ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডকে কিছুটা ধীর দেখাচ্ছিল। কথাতেই রয়েছে, ক্লাস ইজ পার্মানেন্ট। সিলভার ক্ষেত্রেও সেটা প্রযোজ্য। বয়স যাই হোক না কেন, গোলের সামনে সিলভাকে রোখা খুব মুশকিল। তাছাড়া খাতায় কলমে ইস্টবেঙ্গলের দল মোটেও খারাপ না। ফর্মে থাকলে এবং কোচের পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে পারলে সাফল্য পাওয়া যেতে পারে অচিরেই।

ডার্বির পরপর লাল হলুদ শিবিরে এসেছে বড় খবর। মিনি ডার্বিতেও জিতেছে ইস্টবেঙ্গল। কলকাতার অন্যতম প্রধান ক্লাব মহামেডান স্পোর্টিংকেও হারিয়েছে ইস্টবেঙ্গল। দেশের অনূর্ধ্ব ১৭ লীগের ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল কলকাতার দুই প্রধান। সেখানেও জিতেছে ইস্টবেঙ্গল। দাদাদের মতো ভাইয়েরাও উঁচু করে ধরেছে লাল হলুদ মশাল।

কোনো গোল হজম না করে মহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবকে ২-০ গোলে হারিয়েছে ইস্টবেঙ্গলের যুব দল। ভাইদের এই পারফরম্যান্স তাতাবে বড়দেরও। সুপার কাপের জরুরি ম্যাচে নামার আগে সব মিলিয়ে লাল হলুদ তাঁবুতে বেশ ফুল গুড পরিবেশ।

সম্পর্কিত খবর