জুতো নিয়ে ঝামেলা! বিমানবন্দরে চরম হেনস্থার শিকার সৌরভ, সঙ্গে মোটা টাকার ফাইন

সালটা ছিল ২০০২। কিউয়িদের মাটিতে খেলতে যাওয়া নিয়ে একদিকে যেমন টিম ইন্ডিয়া (Team India) উত্তেজনায় টগবগ করে ফুটছিলেন ঠিক সেইসময়ে সারা ভারতবাসীর নজর তাঁদের ওপর ছিল। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ভারতীয় ক্রিকেট টিমের সঙ্গে এমন এক অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে যার জন্য প্রস্তুত ছিলেন না কেউই। বিশেষ করে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (Sourav Ganguly) ও হরভজন সিং (Harbhajan Singh)। সেইসময় এই দুই তারকা ক্রিকেটারের সঙ্গে এমন এক ঘটনা ঘটে যা গোটা ভারতকে একপ্রকার নাড়িয়ে রেখে দেয়।

নিউজিল্যান্ডের (New Zealand) মনোরম প্রাকৃতিক দৃশ্য যেমন সকলের মন ছুঁয়ে যাওয়ার জন্য বিখ্যাত ঠিক তেমনই কঠোর শুল্ক বিধিমালার জন্যেও খ্যাতি অর্জন করেছে এই দেশ। আপনি জানলে চনকে উঠবেন, ২০০২-০৩ মৌসুমে ভারতীয় ক্রিকেট দলের নিউজিল্যান্ড সফরের একটি ভিডিওতে দেখা যায়, অকল্যান্ড বিমানবন্দরে প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও অফ স্পিনার হরভজন সিংকে আটকে দিয়েছেন বিমান বন্দরের কর্মীরা। এখন নিশ্চয়ই ভাবছেন কেন? তাহলে বিস্তারিত জানতে ঝটপট পড়ে ফেলুন প্রতিবেদনটি।

   

নিউজিল্যান্ডের জৈব সুরক্ষা বিধি লঙ্ঘন করে নোংরা জুতো বহনের অভিযোগ উঠেছিল সৌরভ ও হরভজন সিং-এর বিরুদ্ধে। এই ঘটনার জেরে তাদের ৪০০ ডলার জরিমানা অবধি করা হয়। যদিও তারিখগুলি নির্দিষ্ট করা হয়নি, ঘটনাটি সম্ভবত ২০০২-০৩ সালে ভারতের নিউজিল্যান্ড সফরের সময় দুটি টেস্ট এবং সাতটি ওয়ানডে খেলতে গিয়ে ঘটেছিল। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও হরভজন দু’জনেই ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে সাফ দেখা যাচ্ছে, তরুণ পার্থিব প্যাটেল এবং হাস্যোজ্জ্বল রাহুল দ্রাবিড়কে কাস্টমস খুব সহজেই কাস্টমস পাস করছেন। তবে সেদিন হরভজন এবং সৌরভ গাঙ্গুলির সঙ্গে ভাগ্য ছিল না। তৎকালীন এমএএফ এনফোর্সমেন্ট অফিসার টনি ডেভিসের অভিযোগ, হরভজন কাস্টমসে তাঁর ক্রিকেট জুতোর সঠিক হিসাব দেননি।

ডেভিসকে ভিডিওতে বলতে শোনা যাচ্ছে, “হরভজন কিছু জুতো দেখিয়েছেন, কিন্তু কোনো কারণে সে তার অন্যগুলো দেখাতে পারেনি। দেখে মনে হচ্ছে তিনি তাদের দেখাতে চাননি। ডেভিসের অভিযোগ, হরভজনের কাছে এমন কিছু জুতো ছিল যা পরিবেশের পক্ষে খুবই হানিকারক। সেসময়ে রেগেমেগে ভাজ্জি বলেন, ‘তোমাদের দেশে আর আসবই না।’

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটেছিল, যিনি তাঁর তিন জোড়া ক্রিকেট স্পাইক
বুট সম্পর্কে কিছু জানাননি বলে। পুরো দল ক্রাইস্টচার্চের উদ্দেশে বিমানবন্দর ছাড়ার আগে তাকে ২০০ ডলার জরিমানাও করা হয়। তবে জরিমানার টাকা নিজেদের পকেট থেকে দিতে হয়নি খেলোয়াড়দের। জরিমানার টাকা বুঝে নেয় ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট।

সেইসময় নিরাপত্তাকর্মীরা সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ব্যাগ খুলে সেখান থেকে একটা টিফিন বক্স বের করেন। এরপর সৌরভকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘এখানে বাচ্চার জন্য গুঁড়ো দুধ আছে। আর তিন জোড়া জুতো আছে।’ সিকিউরিটি অফিসার পাল্টা বলেন, ‘আপনার কাছে তিন জোড়া জুতো আছে সেটা আপনি আগে বলেননি, ফাইন দিতে হবে।’

সম্পর্কিত খবর