বাংলাদেশকে হারিয়ে ‘টাইম আউট’ সেলেব্রেশন শ্রীলঙ্কার! ‘ওদের মাথায় ভূত চেপেছে’ দাবি শান্তোর

বিশ্বকাপের কথা মনে আছে? শ্রীলঙ্কা বাংলাদেশের ম্যাচে কী হয়েছিল, সেটা আমাদের সবারই জানা। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ ব্যাট করতে ঠিক সময়ে নামলেও, তার কিছু সমস্যা থাকার দরুন বাংলাদেশের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান তাঁকে এক বল না খেলেও মাঠের বাইরে যেতে বাধ্য করেন। সাকিবের এই আচরণ গোটা ক্রিকেট বিশ্বেই সমালোচিত হয়েছিল। তবে সাকিব বলেছিলেন, তিনি এসবে পরোয়া করেন না।

এরপর থেকেই বাংলাদেশ ক্রিকেট দল ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে আলাদাই এক তিক্ততা চলে আসে। তবে বাংলাদেশের সাথে শুধু শ্রীলঙ্কারই নয়, ভারতের সঙ্গেও অনেক তিক্ততা রয়েছে। বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারত অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে হারার পর অস্ট্রেলিয়ার সেলিব্রেশন না হলেও, প্রতিবেশী বাংলাদেশে যেন ঈদ লেগেছিল। এই নিয়ে বিতর্কও ছড়ায় অনেক।

   

তবে, সম্প্রতি শ্রীলঙ্কার সঙ্গে তিন ম্যাচের T20 সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে খেলা এই সিরিজে বাংলাদেশ নিজেদের জয় কাম্য করেছিল। কিন্তু তা হয়নি, ঘরে ঢুকে বাংলাদেশের থেকে সিরিজ ছিনিয়ে নেয় লঙ্কা। প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ ভালো খেললেও পরাজয়ের মুখে পড়ে। এরপর দ্বিতীয় ম্যাচে অনবদ্য পারফর্ম করে ম্যাচ জিতে নেয় টাইগাররা।

শনিবার ছিল নির্ণায়ক ম্যাচ। আর সেই ম্যাচে বাংলাদেশ ঘরের মাঠে ব্যাকফুটে চলে যায়। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শ্রীলঙ্কা ২০ ওভারে ৭ উইকেট খুইয়ে ১৭৪ রানের লক্ষ্যমাত্রা রাখে। বাংলাদেশ সেই রান তাড়া করতে নেমে একের পর এক উইকেট খোয়ায়। ১৯.৪ ওভারে ১৪৬ রানে শেষ হয়ে যায় বাংলাদেশে ইনিংস। তিন ম্যাচের সিরিজের প্রথম ও শেষ ম্যাচ জিতে কাপ হাতে তুলে নেয় শ্রীলঙ্কা।

কাপ হাতে নিয়ে শ্রীলঙ্কার আনন্দ উদযাপন ছিল চোখে পড়ার মতো। বিশ্বকাপে ম্যাথিউজকে টাইম আউট করা ভুলেছিল না তাঁরা। তাই কাপ নিয়ে সবাই টাইম আউটের স্মৃতি উস্কে দিয়ে সেভাবেই সেলেব্রেশন করেন। শ্রীলঙ্কার এই আনন্দ উদযাপন এখন গোটা ক্রিকেট বিশ্বে চর্চিত হচ্ছে।

আর এবার এই নিয়ে মুখ খুলেছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তো মুখ খুলেছেন। তিনি বলেছেন যে, ‘এটা এমন ভাবে ভাবা উচিৎ নয়। ওরা টাইম আউট ঘটনা ভুলতেই চাইছে না। আমার মনে হয়, ওদের এটা ভোলা উচিৎ এবং এগিয়ে যাওয়া উচিৎ। সেই সময় সেটা নিয়মমাফিক নেওয়া সিদ্ধান্ত ছিল। ওদের মাথায় এখনও সেই ভূত চেপে রয়েছে। আমি এটা নিয়ে বেশি চিন্তিত নই।’

সম্পর্কিত খবর