জোর ঝটকা ইস্টবেঙ্গলে! লাল হলুদ শিবিরের জন্য এল দুঃসংবাদ, চরম প্রভাব পড়বে ISL-এ

ইস্টবেঙ্গলের (East Bengal FC) জন্য বড় ধাক্কা। মরসুমের বাকি অংশ থেকে একেবারে বাদ যাওয়ার পথে দলের মিডফিল্ড জেনারেল। আশঙ্কা সত্যি হলে ইন্ডিয়ান সুপার লিগে (Indian Super League) ইস্টবেঙ্গলের ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই হবে আরও কঠিন।

কিছু দিন আগেই কলিঙ্গ সুপার কাপ (Kalinga Super Cup) জিতেছিল ইস্টবেঙ্গল। ওড়িশা এফসি দলকে তাদেরই ঘরের মাঠে হারিয়ে ট্রফি জিতেছিল ইস্টবেঙ্গল। কেটেছিল দীর্ঘ বারো বছরের ট্রফি খরা। এই পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল। এরপর ক্লাবের অন্দর থেকে প্রকাশ পেতে শুরু করে একের পর এক সমস্যা। কোচ হিসেবে ইতিবাচক মনোভাব বজায় রাখার চেষ্টা করলেও কলিঙ্গ সুপার কাপ পরবর্তী দলের খেলা ও চোট সমস্যা হয়ে উঠেছে ইস্টবেঙ্গল সম্পর্কিত আলোচনার নতুন বিষয়।

   

আশঙ্কার খবর জড়িয়ে পড়েছে ইস্টবেঙ্গলের মাঝমাঠের অন্যতম মূল স্তম্ভ সাউল ক্রেসপোকে (Saúl Crespo) নিয়ে। সুপার কাপের পর থেকেই তাঁর ফিটনেস নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছিল। শোনা যাচ্ছিল অনুশীলন করার সময় খুব একটা স্বস্তিতে নেই স্প্যানিশ তারকা। শেষ পর্যন্ত দল থেকে বাদ দিতে হয় তাঁকে। ইন্ডিয়ান সুপার লিগের ম্যাচে নর্থ ইস্ট ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে ম্যাচে ক্রেসপোকে ছাড়া খেলেছিল ইস্টবেঙ্গল। লড়াই চালালেও জিততে পারেনি ইস্টবেঙ্গল। হেরে গিয়েছিল। ক্রেসপো ছাড়া মাঝ মাঠে কার্ড সমস্যার কারণে ছিলেন না সৌভিক চক্রবর্তী।

সাউল ক্রেসপোকে ছাড়া ভঙ্গুর দেখিয়েছে ইস্টবেঙ্গল দলের মাঝ মাঠ। তাঁর চোটের গুরুত্ব কতটা, কিংবা কবে তিনি মাঠে ফিরতে পারবেন সে ব্যাপারে নিশ্চিত করে কিছু জানা যায়নি। ক্লাবের পক্ষ থেকে সরকারিভাবে আপাতত কিছু জানানো হয়নি। তবে শোনা যাচ্ছে গুরুতর আশঙ্কার কথা।

saúl crespo

আশঙ্কা করা হচ্ছে, সাউল ক্রেসপোর চোট বেশ গুরুতর। আপাতত তাঁর মাঠে নামার কোনো সম্ভাবনা নেই। মিস করতে পারেন একাধিক ম্যাচ। কেউ কেউ আশঙ্কা করছেন, মরসুমের বাকি অংশে আর হয়তো তিনি খেলতে পারবেন না। তেমনটা সত্যি হলে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের জন্য সমস্যা যে আরও বাড়বে সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

সম্পর্কিত খবর