বঙ্গোপসাগর থেকে হুহু করে ঢুকছে জ্বলীয় বাষ্প! নাজেহাল হবে দক্ষিণবঙ্গ, আবহাওয়ার ভয়ঙ্কর রিপোর্ট

পশ্চিমী ঝঞ্ঝার দাপটে বিগত বেশ কিছুদিন ধরে বাংলায় (West Bengal)  দফায় দফায় বজ্রবিদ্যুৎ (Thunderstorm) সহ বৃষ্টি দেখেছেন মানুষজন। গত ৪ মার্চ অবধি এই ঝঞ্ঝার প্রভাবে দফায় দফায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ ঝড় বৃষ্টি হয়েছে দক্ষিণবঙ্গ (South Bengal) ও উত্তরবঙ্গের (North Bengal) জেলাগুলিতে। যদিও এই পশ্চিমী ঝঞ্ঝা নিয়ে এবার বড় তথ্য দিল আলিপুর আবহাওয়া দফতর, যা আপনারও শুনে রাখা জরুরি।

জানা গিয়েছে, আপাতত পশ্চিমী ঝঞ্ঝা দুর্বল হয়ে পূর্ব দিকে সরে যাওয়ার কারণে ফের একদফা সক্রিয় হবে শুষ্ক উত্তর পশ্চিমা বাতাস। যার জন্য দিনের বেলায় বাড়বে শুষ্কতা ও রাতে হালকা ঠাণ্ডা থাকবে কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গে। এছাড়া আগামী ৫ থেকে ৭ দিনে এরকমই আবহাওয়া বিরাজ করবে। দিনের তাপমাত্রা থাকবে ৩১ থেকে ৩৩°সে এর আশেপাশে এবং ভোরের দিকে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নামবে ১৮ থেকে ২০°সে এর আশেপাশে। আগামী ৫ দিনে কলকাতায় উল্লেখযোগ্য বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। পশ্চিমা বাতাসের কারণে বাড়বে শুষ্কতা।

   

তবে কি আপাতত ঝড়, বৃষ্টি থেকে মুক্তি পেল রাজ্যবাসী? আজ মঙ্গলবার আপাতত বর্ষণের কোনো সম্ভাবনা নেই। যদিও আগামীকাল থেকে ফের বদলাবে বাংলার আবহাওয়া। বুধবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত বীরভূম ও পশ্চিম বর্ধমানে হালকা বৃষ্টি হতে পারে। হাওয়া অফিসের বিজ্ঞানীদের মতে, যেহেতু বঙ্গোপসাগর থেকে প্রচুর জলীয় বাষ্প রাজ্যের দিকে প্রবেশ করছে, সেজন্য আগামী দিনে বাংলার বহু জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হতে পারে হালকা থেকে মাঝারি পরিমাণে।

rain wb

অন্যদিকে আজ উত্তরবঙ্গের আবহাওয়া কেমন থাকবে সে সম্পর্কে কোনো ধারণা আছে আপনার? তাহলে আপনাদের জানিয়ে রাখি, সোমবারের পর আজ মঙ্গলবার দার্জিলিং ও কালিম্পং জেলার কয়েকটি জায়গায় হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। যদিও বাকি জেলাগুলি মোটের ওপর শুকনোই থাকবে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর