আমিরের কেরিয়ার শেষ, এবার পালা শাহরুখের! লাল সিং-র পর পাঠান বয়কটের ডাক ট্যুইটারে

বলিউডের সময় বেশ খারাপ চলছে এখন। নিত্যদিন ছবি বয়কটের ডাক দিচ্ছে মানুষ। প্রতিদিনই সোশ্যাল মিডিয়ায় কোনো না কোনো চলচ্চিত্র বা বলিউডের শিল্পীকে বয়কট করা হয়। সাম্প্রতিক কালের ছবিগুলির কথা বললে, ইন্ডাস্ট্রির মিস্টার পারফেকশনিস্ট আমির খানের (Aamir Khan) ‘লাল সিং চাড্ডা’ এই বয়কটের মুখে পড়ে রীতিমত ডিজাস্টারের খাতায় নিম লিখিয়েছে।

রেহাই পায়নি অক্ষয় কুমারের (Akshay Kumar) রক্ষা বন্ধনও। টুইটার, ফেসবুক থেকে শুরু করে সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেল জুড়ে রীতিমত বয়কট ট্রেন্ড শুরু করেছে মানুষ। আর এবার শাহরুখ খানের (Shah Rukh Khan) আসন্ন ছবি পাঠান ছবি বয়কটের ডাক দিয়েছে নেটিজনরা।

প্রসঙ্গত, এই বিতর্ক বেশ কিছুদিন আগে শুরু হলেও জোরালো হয় আমির খানের ‘লাল সিং চাড্ডা’ ছবির প্রোমোশন শুরু হতেই। ছবির কথা প্রকাশ্যে আসতেই নেটিজনরা আমিরের কিছু পুরোনো মন্তব্য খুঁজে বের করে আনে। যেখানে তিনি বলেছিলেন যে, এই দেশ আর বসবাসের উপযোগী নয়। তার স্ত্রী ভয় পাচ্ছে এখানে থাকতে।

এরপর থেকেই তার ছবি বয়কটের ডাক দেয় আম জনতা। শুধু তাই নয়, পাশাপাশি এই আগুনে ঘি ঢালে ছবির আরেক মূখ্য চরিত্র করিনা কাপুরের মন্তব্য। সবে মিলিয়ে বলাই যায় যে, বয়কট ঝড়ে রীতিমত ধাক্কা খেয়েছে ছবিটি‌‌। আর সাম্প্রতিক কালে যা দেখা যাচ্ছে যে, শাহরুখের আসন্ন ছবির উপরেও অব্যাহত থাকতে পারে এই বয়কট ঝড়।

আসলে সোশ্যাল মিডিয়াতে কিং খানের ‘পাঠান’ ছবি বয়কটের ডাক ওঠে ‘লাল সিং চাড্ডা’তে তার ক্যামিও দেখার পরই। দীর্ঘ চার বছর পর পর্দায় কামব্যাক করছেন শাহরুখ। আর মুক্তির আগেই বেশ ভালো রকমের সমস্যায় পড়বে বলেই ধারণা ফিল্ম বিশেষজ্ঞদের।‌ পাশাপাশি, পাঠানের মূখ্য অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনের জেএনইউতে যাওয়ার ঘটনা নিয়ে কিছু ভক্ত এখনও ক্ষিপ্ত এবং সে কারণেই তারাও এই ছবিকে বয়কট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

জানিয়ে রাখি শাহরুখ-দীপিকা অভিনীত ‘পাঠান’ ছবিটি আগামী বছরের ২৫ জানুয়ারি প্রেক্ষাগৃহে নক করবে। এছাড়াও ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় দেখা যাবে জন আব্রাহামকেও। ইতিমধ্যেই প্রকাশ্যে এসেছে শাহরুখ, দীপিকার লুক। টিজার দেখে এটি একটি অ্যাকশন মশালা ফিল্ম বলে মনে হলেও টুইটারে বয়কট ট্রেন্ড দেখে নির্মাতারা এখন বেশ উদ্বিগ্ন। কারণ এই বয়কট ঝড়ে পড়ে ‘লাল সিং চাড্ডা’র ফলাফল তো সবার সামনেই।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button