শোয়েবের প্রথম স্ত্রীও ভারতীয় ছিলেন, ডিভোর্স ছাড়াই বিয়ে করেন সানিয়াকে! প্রকাশ্যে বিস্ফোরক তথ্য

এতদিন ধরে জল্পনা কল্পনা চললেও এখন রিপোর্ট আসছে যে, সানিয়া মির্জা (Sania Mirza) ও শোয়েব মালিকের (Shoaib Malik) বিয়ে শেষ পর্যন্ত ভেঙেই যাচ্ছে। এখনো পর্যন্ত অবশ্য দুই তারকাই এই নিয়ে মুখ খোলেননি। কিন্তু তার কারণ সানিয়া এবং শোয়েব একাধিক TV শোয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ। তাই মুখ খুলে সত্যি বললে তাদের মধ্যে আইনি জটিলতা বাড়বে। সেজন্য আপাতত দুজনেই সত্যি বলতে চাইছেন না।

কিন্তু সত্যিকে ঢাকা দিয়েও রাখতে পারছেন না তারা। বিশেষত শোয়েব মালিক এবং পাক সুন্দরী আয়েশা ওমরের সম্পর্ক সামনে আশার পর থেকেই এই নিয়ে জটিলতা বেড়েছে। অবশ্য এক সুন্দরী নয়, বিখ্যাত পাক অভিনেত্রী মাহিরা খানের সাথেও নাকি সম্পর্ক রয়েছে শোয়েব মালিকের! দুজনকে নিয়ে আলোচনা শুরু হওয়ায় সাথে সাথে উঠে আসছে শোয়েব মালিকের অতীত।

fghjk

শোয়েব মালিকের প্রথম স্ত্রীর নাম আয়েশা সিদ্দিকি। এবং মজার ব্যাপার এই যে, তিনিও একজন ভারতীয় ছিলেন। সেবারও শোয়েব প্রথমে এই নিয়ে কিছুই স্বীকার করতে চাননি। কিন্তু শেষমেষ ২০১০ সালে সমস্ত সত্যি সামনে আশার পর আর চুপ করে বসে থাকতেও পারেননি তিনি। ২০১০ সালেই আবার সানিয়াকে বিয়ে করে নেন তিনি।

শোয়েব মালিক আয়েশা সিদ্দিকির সাথে বিয়ের কথা না বললেও আয়েশা মুখ খোলেন এই নিয়ে। এমনকি আয়েশার সাথে ডিভোর্স হওয়ার আগেই ২০০৯ সালে হায়দ্রাবাদে এনগেজমেন্ট হয়ে যায় শোয়েব মালিক এবং সানিয়া মির্জার। যদিও আয়েশা মুখ খোলার পর শোয়েব তাকে ডিভোর্স দেন। কিন্তু অনেকেই হয়তো জানেন না কী কারণে আয়েশা এবং শোয়েবের সম্পর্ক নষ্ট গিয়ে যায়। জানা যায় আয়েশা প্রচণ্ড মোটা হওয়ায় তা পছন্দ ছিল না শোয়েব মালিকের।

indiatv5505c0 shoaib

এদিকে আয়েশার সাথে বিয়ে ভাঙার ১২ বছর পর সানিয়ার সাথেও সম্পর্ক ভেঙে যেতে বসেছে। যেভাবে প্রথম স্ত্রী আয়েশাকে ধোঁকা দেন শোয়েব, তেমন ভাবে সানিয়াকেও ঠকিয়েছেন তিনি। এখন দেখার কত জলদি ডিভোর্স হয় তাদের মধ্যে। ঘনিষ্ঠ সূত্র থেকে এও জানা যাচ্ছে যে, ডিভোর্সের জন্য বেশ ভালই খরচ করতে হবে শোয়েব মালিককে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button