লোহার রড হাতে ধাওয়া ২০ বাইকারের! কোনোমতে প্রাণ বাঁচিয়ে ফেরেন সলমন খান

বলিউডের দাবাং সলমন খানকে (Salman Khan) হত্যার হুমকি দেওয়ার ঘটনা আজকাল সংবাদের শিরোনামে। সলমন খান বরাবরই সবচেয়ে জনপ্রিয় তারকা। সলমন যত বেশি ভালবাসা পান, ততই তিনি বিদ্বেষীদের টার্গেটে থাকেন। ২০১৩ সালে হায়দরাবাদে সলমন খানের সাথে একটি ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটেছিল। যেখানে ২০ জন বাইকার তার পিছনে পড়েছিল। জানলে অবাক হবেন যে, তাদের হাতে রডও ছিল।

বলিউড লাইফের প্রতিবেদন অনুসারে, বিষয়টি ২০১৩ সালের দিকে যখন সলমন খান সেলিব্রিটি ক্রিকেট লিগের জন্য হায়দরাবাদে পৌঁছেছিলেন। সলমন খানের ভাই সোহেল খান ক্রিকেট লিগে মুম্বাই হিরোসের হয়ে খেলছিলেন। তেলেগু ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে খেলছিল সোহেলের দল। লাল বাহাদুর শাস্ত্রী স্টেডিয়ামে এই ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ম্যাচ শেষ হয় রাত ১১ টায়। ম্যাচ শেষে সলমন খান স্টেডিয়াম ছেড়ে পার্কিং এলাকার দিকে যান। অভিনেতার নিরাপত্তায় গেট থেকে লোকজন সরিয়ে দেওয়া হয়।

সলমনের গাড়ি স্টেডিয়াম থেকে বের হতেই ২০ জন বাইকার অভিনেতার গাড়ির পেছনে ধাওয়া করতে শুরু করে। তাদের সবার হাতে রড ছিল। পরিস্থিতি আরও খারাপ হয় যখন ওই বাইক আরোহীরা সলমনের গাড়ির দরজায় টোকা দেয়। বাইকাররা স্টেডিয়াম থেকে সলমনের হোটেল পর্যন্ত তার গাড়ি অনুসরণ করে। এই ঘটনা সলমনকে খুব ক্ষুব্ধ করে তোলে। বাইকারদের এই আচরণের কারণে সলমন খানের মাথা গরম হয়ে যায়, কারণ এতে দুর্ঘটনা ঘটতে পারত।

যাইহোক, এটা বলতেই হয় যে সলমন খানকে নিয়ে মানুষের পাগলামির একটা সীমা আছে। এখন সেই বাইক রাইডারদের ভক্ত বলা যাবে না যারা এমন জঘন্য কাজ করেছে। যে ভক্তরা সলমন খানের মাথা গরম করে তোলেন তারা মোটেও তার ভক্ত হতে পারেন না। তবে শুধু সলমনই নন অনেক অভিনেতাকে তাদের জীবনে এমন ঝুঁকিপূর্ণ অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হতে হয়েছে।

arbaaz khan 1626689223858 1627386992214

সলমন খানের কাজ সম্পর্কে কথা বলতে গেলে, তার আসন্ন ছবি ভাইজান। তার বিপরীতে দেখা যাবে পূজা হেগড়েকে। এই ছবির মাধ্যমে অভিষেক হচ্ছে শাহনাজ গিলেরও। চলতি বছরের ৩০ ডিসেম্বর মুক্তি পাবে সলমন খানের এই ছবি। সলমনের টাইগার ৩ ও লাইনে রয়েছে। সলমন খানের এই আসন্ন ছবিগুলো নিয়ে ভক্তরা খুবই উচ্ছ্বসিত।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button