এবার আরও বড় ঝটকা খাবে দেশবাসী! এই কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে RBI

সারাবিশ্বেই শুরু হয়েছে অর্থনৈতিক অচলাবস্থা। আর তার প্রভাব পড়েছে দেশের মধ্যেও। দেশের অন্দরেও ক্রমবর্ধমান মুদ্রাস্ফীতির কারণে বিপর্যস্ত সাধারণ মানুষ আর এখানেই শেষ নয়। আগামীতে আরো বড় ধাক্কা আসতে পারে। আর সেইরকম খারাপ অবস্থা যাতে না আসে তারজন্য ব্যবস্থা নেবে কেন্দ্রীয় রিজার্ভ ব্যাংক (Reserve Bank of India)।

আসলে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থাতে যেন কোনো আঁচড় না আসে সেই দিকে নজর রেখেছে রিজার্ভ ব্যাংক। সেজন্য তারা এবার কঠোর পদক্ষেপ নিতেও পিছপা হবেনা। RBI তাদের বুলেটিনের মাধ্যমে দেশবাসীকে এইব্যপরে সমস্ত তথ্য জানায়।

গত 17 অক্টোবর এই মাসের বুলেটিন প্রকাশ করেছে তারা। আপনাদের জানিয়ে রাখি যে, এই বছর মুদ্রাস্ফীতিকে নিয়ন্ত্রণে আনতে ৪বার রেপোরেট বাড়িয়েছে রিজার্ভ ব্যাংক। এই বুলেটিনে জানানো হয়েছে যে, এবার দেশে মুদ্রানীতির ফোকাস থাকবে মূদ্রাস্ফীতিকে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসা।

RBI এর বুলেটিনের মধ্যে থাকা ‘স্টেট অব দ্য ইকোনমি’ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, মুদ্রানীতির আওতায় নেওয়া পদক্ষেপের প্রভাব দেখাতে কিছুটা সময় লাগতে পারে। কিন্তু একটানা পরপর তিন ত্রৈমাসিকে রিটেল মুদ্রাস্ফীতি আরবিআই-এর লক্ষ্যের ওপরে থাকায় তার দায়িত্ব নির্ধারণের প্রক্রিয়াও শুরু হবে। মুদ্রাস্ফীতিকে নিয়ন্ত্রণে আনতে RBI এবার আরও কঠোর ব্যবস্থা নিতে চলেছে।

RBI এর তরফে জারি করা বুলেটিনে বলা হয়েছে যে, করোনা মহামারী ছাড়াও মুদ্রাস্ফীতির ওপর প্রভাব পড়েছে বৈশ্বিক অর্থনীতির। RBI-এর ডেপুটি গভর্নর এবং মুদ্রা নীতি কমিটির সদস্য মাইকেল পাত্র এই রিপোর্ট নির্মাণ করেন। আগামী অর্থবর্ষে মূল্যবৃদ্ধি কেমন থাকবে সেই নিয়েও নিজেদের মতামত জানিয়েছে RBI।

rbi 1fa

রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া অনুমান করছে যে, 2022-23 এর অর্থবর্ষের শেষদিকে পরিস্থিতি কিছুটা ভালো হলে মূদ্রাস্ফীতি 6.7 শতাংশে নেমে আসবে। আগামি 2024 সালের সময় যা আরো কমে 5 শতাংশে নেমে আসতে পারে। অদূর ভবিষ্যতে তা 4 শতাংশে নেমে আসতে পারে বলেই জানিয়েছেন রিজার্ভ ব্যাংকের গভর্নর শক্তিকান্ত দাস।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button