ফের বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন প্রসেনজিৎ, এবার পাত্রী তার সেরা নায়িকা ঋতুপর্ণা!

অর্পিতাকে ছেড়ে আবারও ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ততে (Rituparna Sengupta) মজেছে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় (Prosenjit Chatterjee)। এমনকি পাকা দেখা থেকে শুরু করে বিয়ের কার্ড অবদি পৌঁছে গিয়েছে ব্যাপারটা। কিন্তু কী এমন হলো যে অর্পিতাকে ছেড়ে ঋতু ঋতু করে সোশ্যাল মিডিয়া মাথায় তুললেন বুম্বাদা? তবে অবিশ্বাস্য লাগলেও এটাই সত্যি যে, খুব শীঘ্রই সামনে আসতে চলেছে ঋতুপর্ণা আর প্রসেনজিৎ এর বিয়ের তারিখ।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসেই এই বিষয়ে প্রসেনজিৎ ঋতুপর্ণা একটা আভাস দিয়েছিলেন। আর এবার কার্যত সেটাই ভিডিও বার্তায় প্রকাশ করলেন নেটিজেনদের সামনে। ভিডিও বার্তায় দেখা যাচ্ছে যে, খুব শীঘ্রই নাকি বিয়ের ডেট ফাইনাল করার জন্য উতলা হয়ে উঠেছেন প্রসেনজিৎ।

এখন অনেকেই এই নিয়ে প্রশ্ন তুলবে বটে কিন্তু বুম্বাদা আর ঋতুপর্ণাকে আটকায় কার সাধ্যি। সাম্প্রতিক এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, ঋতু ঋতু করে গলা বসিয়ে ফেলছেন প্রসেনজিৎ। আর সেই ডাক শুনে ছুটে এলেন টলি কুইন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। প্রশ্ন করলেন, “কী হল, এত চেঁচামিচি করছ কেন?” প্রসেনজিতের উত্তর, “চেঁচামিচি নয়। এবার বিয়ের দিনটা ঠিক করা উচিত না?”

প্রসেনজিৎ-এর কথা শুনে খানিকটা থতমত খেয়ে ঋতুপর্ণা প্রশ্ন করেন, “কী আমাদের বিয়ে তারিখ! আজেবাজে বকছ! ছেলে-মেয়ে বড় হয়ে গিয়েছে। বিয়ের তারিখ!” কিন্তু প্রসেনজিৎ যে নাছোড়বান্দা। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল এই ভিডিওটি দেখে কার্যত বেশ ব্যোমকে গিয়েছে নেট নাগরিকরা। ঠিক কী ঘটতে চলেছে তা বোধগম্য হচ্ছে না কারোরই।

আর তারপরই বিষয়টা খোলসা করেন প্রসেনজিৎ। বুম্বাদা বলেন, “আরে আমাদের বিয়ের কথা থোড়াই হচ্ছে। এতো…।” এরপরেই দেখা যায় ভিডিওতে সমস্যা। প্রথমে বিষয়টি প্রযুক্তিগত সমস্যা মনে হলেও আদতে তা নয়। এটি প্রসেনজিৎ-এর টিমেরই কারসাজি। এখন বুম্বাদার অসম্পূর্ণ কথা জানার জন্য অপেক্ষা করতেই হবে।

অবশেষে ভিডিওর শেষে ভেসে উঠছে, “প্রসেনজিৎ ওয়েডস ঋতুপর্ণা।” তারিখও যে খুব তাড়াতাড়িই জানানো হবে সেই আভাসও দেওয়া হয়েছে এই পোস্টে। এখন এই ঘটনা রিয়েল লাইফের না রিল লাইফের তা তো সময় বলবে। যদিও নেটিজেনদের তরফ থেকে মিলছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। কেউ কেউ বলতে চেয়েছেন বুড়ো বয়সে আদিখ্যেতা আবার কেউ কেউ বলছে ফাইনাল দেখার অপেক্ষায় রইলাম।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button