বড় ঝটকা খেল সেমিতে যাওয়ার স্বপ্নে বিভোর পাকিস্তান! বাবরদের মাথায় ভেঙে পড়ল পাহাড়

শনিবার বিশ্বকাপ (Cricket World Cup) ২০২৩-এর ৩৬তম ম্যাচে মুখোমুখি হয় পাকিস্তান (Pakistan) ও নিউজিল্যান্ড (New Zealand)। এই ম্যাচে ডাকওয়ার্থ-লুইসের নিয়মে জয় পায় পাকিস্তান। কিন্তু এরপরেই আইসিসির পক্ষ থেকে জরিমানা করা হয়। বেঙ্গালুরুতে নিউজিল্যান্ডের ইনিংসের সময় পাকিস্তান দল স্লো ওভার রেটিংয়ে অভিযুক্ত হয়। তারা দুই ওভারের অতিরিক্ত সময় নিয়েছিল বলে অভিযোগ। এ কারণে ম্যাচ ফি’র ১০ শতাংশ জরিমানা করা হয় পাকিস্তান দলকে।

   

এই পেনাল্টি পাকিস্তানের প্রয়োজনীয় জয়ের আনন্দকে বিঘ্নিত করতে পারে। শনিবারের ম্যাচে ফখর জামানের দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে ২৫ ওভারে দলের স্কোর দাঁড়ায় ২০১ রানে। এই ইনিংসই ঠিক করে দিয়েছিল যে পাকিস্তান দল জয়ের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। আর এই মুহূর্তে সেমিফাইনালের দৌড়ে নিজেকে বজায় রাখতে চলেছে পাকিস্তান।

ফিল্ড আম্পায়ার পল উইলসন ও রিচার্ড কেটলবরো, তৃতীয় আম্পায়ার রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ ও চতুর্থ আম্পায়ার জোয়েল উইলসন পাকিস্তানের বিরুদ্ধে স্লো ওভার স্পিডের অভিযোগ তোলেন। আইসিসির ম্যাচ রেফারিদের এলিট প্যানেল রিচি রিচার্ডসনের অনুমোদন নিয়ে এই জরিমানা করা হয়। আচরণবিধির ২.২২ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী এই জরিমানা করা হয়েছে। এই নিবন্ধ অনুসারে, খেলোয়াড়রা তাদের দল কর্তৃক নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ওভার বোলিং করতে ব্যর্থ হয়েছে। প্রতিটি ধীর ওভারের জন্য তাদের ম্যাচ ফি’র পাঁচ শতাংশ জরিমানা করা হয়।

pakistan cricket team

পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম (Babar Azam) ধীর ওভারের বোলিংয়ের ভুল স্বীকার করেছেন এবং আইসিসির আরোপিত জরিমানা মেনে নিয়েছেন। পাকিস্তানের বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান ফখর শুধু ৮১ বলে অপরাজিত ১২৬ রানই করেননি, ডাকওয়ার্থ-লুইস নিয়ম অনুযায়ী দলের স্কোরও এগিয়ে রেখেছিলেন। শেষ পর্যন্ত বৃষ্টির কারণে ম্যাচ শুরু না হওয়ায় ডাকওয়ার্থ-লুইসের নিয়মে ২১ রানে জয় পায় পাকিস্তান।