বিয়ে করতে বাধ্য করে মিঠুন! ৩৩ বছর পর ষড়যন্ত্র ফাঁস করলেন খোদ পদ্মিনী কোলাপুরি

বলিউডের দুই বহুল পরিচিত নাম হল মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty) এবং পদ্মিনী কোলাপুরি (Padmini Kolhapure)। একদিকে ৭০-৮০ এর দশকে পদ্মিনী যখন পৌঁছে গেছেন সাফল্যের শীর্ষে সেই সময় মিঠুনও তারকাদের খাতায় নিজের নাম লিখিয়ে নিয়েছিলেন। কর্মসূত্রে আলাপ এবং সেখান থেকেই বন্ধুত্ব। সেই বন্ধুত্ব এতটাই গভীর যে, পদ্মিনীর জন্য চরম বিপদের সম্মুখীনও হতে পিছপা হতেন না মিঠুন।

এক সাম্প্রতিক অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এই দুই তারকাই। দীর্ঘ বিরতির পর একসাথে বসে বেশ খোশ মেজাজে অতীতে ফিরে গিয়েছিলেন তারা। কথা প্রসঙ্গে পদ্মিনীর বিয়ের কথা উঠে এলে, এমন সব গোপন তথ্য বেরিয়ে এল যা শুনলে আপনিও অবাক হবেন। পদ্মিনী কোলাপুরির বিয়ের কথা সবাই জানলেও, একথা খুব কম মানুষই জানেন যে, এই বিয়ের পেছনের কাণ্ডারি ছিলেন খোদ মিঠুন।

জানা গিয়েছে, ১৯৮৬ সালে একটি ছবির শ্যুট করছিলেন পদ্মিনী এবং মিঠুন। সেখানে হঠাৎ করেই পেটে ব্যাথায় কাতরাতে থাকেন অভিনেতা। সেই সময় সবাই মিঠুনকে নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়লে এই সুযোগে পদ্মিনী চুপিসারে সেট থেকে বেরিয়ে তার প্রেমিক তথা প্রযোজক প্রদীপ শর্মাকে বিয়ে করে নেন। তবে মজার বিষয় হল, এই গোটা বিষয়টাই নাকি মিঠুনের সাজানো ছিল।

তার নিখুঁত অভিনয়ে বিষয়টা কেউ ধরতেই পারেনি এতদিন। সবার সামনে পেটে ব্যথার এমন অভিনয় তিনি করেছিলেন যাতে পদ্মিনী দ্রুত বিয়ে করে আবার ফিরে আসতে পারেন। এমনকি যতক্ষণ না পদ্মিনীর বিয়ের সম্পন্ন হয় ততক্ষণ অসুস্থতার অভিনয় করে গিয়েছিলেন তিনি।

দীর্ঘ ৩৩ বছর পর এক রিয়েলিটি শোয়ের মঞ্চে দুই বন্ধুর আড্ডার উঠে এল এই কাহিনী। এইদিনের এই অনুষ্ঠানে নিজেদের নানান কীর্তি কাহিনী ভাগ করে নিলেন অনুরাগীদের সঙ্গে। জানা যায়, মিঠুন আর পদ্মিনীর সম্পর্কটা ছিল টক-ঝাল-মিষ্টির মত। আদর ভালোবাসা যেমন ছিল তেমনই আবার মারপিট ও হত।

mithun padmini

জানিয়ে রাখি, মিঠুন-পদ্মিনী এক সময় ‘পেয়ার ঝুকতা নেহি’, ‘স্বর্গ সে সুন্দর’, ‘হাম ইন্তেজার করেঙ্গে’ এর মত একাধিক সুপারহিট ছবিতে অভিনয় করেছিলেন। যদিও বর্তমানে দুজনেরই বয়স বেড়েছে তবে তাদের সেই বন্ধুত্ব আজও অটুট।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button