চলে এসেছে মূর্তি, কবে খুলবে দিঘার জগন্নাথ মন্দির? দিনক্ষণ জানালেন মমতা

বর্তমান সময়ে অযোধ্যার (Ayodhya) রাম মন্দির (Ram Mandir) নিয়ে দেশবাসীর মধ্যে মাতামাতির শেষ নেই। এখন অনেকেই আছেন যারা একবার হলেও অযোধ্যায় তৈরি হওয়া রাম মন্দিরে অধিষ্ঠিত হওয়া রামলালার দর্শন করার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন। তবে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী এমন এক ঘোষণা করেছেন যে শুনে চমকে গিয়েছেন সকলে।

আর এই ঘোষণা করা হয়েছে দিঘার (Digha) বুকে তৈরি হওয়া জগন্নাথ মন্দির (Jagannath Temple) নিয়ে। এই জগন্নাথ মন্দিরটি পুরীর (Puri) সবথেকে বড় আকর্ষণ জগন্নাথ মন্দিরের আদলে তৈরি হচ্ছে। আপনিও কি জানতে চান দিঘায় যে মন্দিরটি তৈরি হচ্ছে সেটা কবে উদ্বোধন হবেন? তাহলে বিস্তারিত জানতে ঝটপট পড়ে ফেলুন প্রতিবেদনটি। সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) তমলুকে সরকারি কর্মসূচি থেকে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার জন্য ১৪৩৭ কোটি টাকারও বেশি মূল্যের ৪৯৩টি প্রকল্পের উদ্বোধন ও শিলান্যাস করেন। কর্মসূচি থেকে বিভিন্ন সমাজকল্যাণমূলক প্রকল্পের সাথে সম্পর্কিত ৭.২০ লক্ষেরও বেশি লোককে সুবিধা দেওয়া হয়েছিল।

   

এদিকে এই অনুষ্ঠান থেকেই দিঘায় জগন্নাথ মন্দিরের নির্মাণ কাজ চলছে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, মন্দিরের উচ্চতা পুরীর জগন্নাথ মন্দিরের উচ্চতার সমান হবে। ‘ভোগ’ পরিবেশনের জায়গাটি পর্যাপ্ত হবে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পূর্ব মেদিনীপুরের সভা থেকে জানিয়ে দেন, মূর্তি তৈরি হয়ে চলে এসেছে।

পুরীতে যে জগন্নাথ দেবের মূর্তি রয়েছে সেটি নিম কাঠের তৈরি আর দীঘার জগন্নাথ মন্দিরের মূর্তি মার্বেল দিয়ে তৈরি হচ্ছে বলে খবর। ২০ একর জায়গায় জগন্নাথ দেবের মন্দির তৈরি করা হচ্ছে। এই জায়গা দেওয়া হয়েছে দীঘা শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদের তরফ থেকে। দীঘায় যে মন্দির তৈরি করা হচ্ছে সেটি ৬৫ মিটার উঁচু। ফুটের হিসাবে ২১৩ ফুট। এই মন্দিরটি তৈরি করতে রাজ্য সরকারের খরচ হচ্ছে ১৪৩ কোটি টাকার বেশি। কবে সর্বসাধারণের জন্য এই মন্দিরের দরজা খুলবে? এই বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী জানান, আগামী চার মাসের মধ্যে মন্দির তৈরির কাজ সম্পূর্ণ হয়ে যাবে। কাজ সম্পন্ন হয়ে যাবার পর মন্দির উদ্বোধন করা হবে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর