২৬ বছরে মাত্র এক দিন ছুটি! ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসে নাম তুললেন বেসরকারি কর্মী

কাজই তাঁর একমাত্র ধ্যানজ্ঞান। নইলে নিজের ২৬ বছরের কর্মজীবনে মাত্র একদিন ছুটি নিতে পারে না কেউ। হ্যাঁ এমনই এক নজির গড়ে খবরের শিরোনামে নিজের জায়গা পাকা করে নিয়েছেন তেজপাল সিং। তিনি উত্তরপ্রদেশের বিজনৌরের বাসিন্দা। এই ব্যক্তি নিজের ২৬ বছরের কর্মজীবনে মাত্র একদিন ছুটি নিয়েছেন। শুনতে অবিশ্বাস্যকর মনে হলেও এটাই একদম সত্যি। উত্তরপ্রদেশের বিজনৌরের বাসিন্দা এক অনন্য রেকর্ড গড়েছেন তেজপাল সিং। ছুটি না নিয়েও যে রেকর্ড গড়া যায় সেটা এই তেজপাল সিংকে না দেখলে হয়তো কেউ জানতেও পারতেন না।
আপনি জানলে অবাক হবেন,গত ২৬ বছরে মাত্র একদিনের ছুটি নিয়েছেন তেজপাল সিং।

আপনিও নিশ্চয়ই ভাবছেন যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া এই ব্যক্তির কথা, ইনি কে? তাহলে বিস্তারিত জানতে ঝটপট পড়ে ফেলুন আজকের প্রতিবেদনটি। তেজপাল সিং দ্বারিকেশ সুগার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডে ট্রেনি ক্লার্ক হিসাবে কাজ শুরু করেছিলেন। ততদিনে হয়তো তিনি জানতেনই না যে তিনি নিজের নামে এমন একটি রেকর্ড করবেন, যা খুব কমই কেউ ভাঙতে পারে।

মাত্র এক দিন ছুটি নিয়েছেন তেজপাল সিং

   

তিনি ১৯৯৫ সালে কোম্পানিতে কাজ শুরু করেছিলেন তবে এখনও পর্যন্ত তিনি সংস্থা থেকে মাত্র একবার ছুটি নিয়েছেন। প্রতিষ্ঠানটি সাপ্তাহিক ছুটি ও উৎসব ছুটিসহ বছরে প্রায় ৪৫টি ছুটি দেয় নিজেদের কর্মীদের। কিন্তু ১৯৯৫ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত মাত্র একবারই ছুটি নিয়েছিলেন তেজপাল। ২০০৩ সালের ১৮ জুন ছোট ভাই প্রদীপ কুমারের বিয়ের সময় তিনি এই ছুটিটি নেন। ‘ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডস’-এ তেজপালের নাম ইতিমধ্যে উঠে এসেছে।

তেজপালের যৌথ পরিবার রয়েছে। তার ছোট দুই ভাই রয়েছে। পুরো পরিবার একসঙ্গে থাকে। তেজপালের নিজের চার সন্তান – দুটি ছেলে এবং দুটি মেয়ে। তেজপাল সিং সর্বদা সময়মতো অফিসে পৌঁছান এবং সময়মতো আবার বাড়ি ফিরে আসেন। কিন্তু কখনোই স্বেচ্ছায় ছুটি নেবেন না বলে সাফ সাফ জানিয়ে দিয়েছেন।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর