প্রথম প্রচেষ্টাতেই UPSC ক্লিয়ার, মাত্র ২৩ বছর বয়সে যা করলেন ‘বাংলার মেয়ে’! শুনে গর্ব হবে

জীবনে বড় হয়ে নিজের পায়ে দাঁড়াতে কে না চায়, আপনিও চান নিশ্চয়ই? জীবনে চলার পথে অনেকেই আছেন যারা জীবনে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার স্বপ্ন দেখেন। কিন্তু খুব কম মানুষই আছেন যারা কোনও স্বপ্নকে বাস্তবে পরিণত করতে পারেন। যদি হাজারো প্রতিকূল অবস্থার মধ্যে থেকেও অনেকেই আছেন যারা নিজের স্বপ্নকে সত্যি করতে পারেন। আজ এই প্রতিবেদনে তেমনি একজন মানুষকে নিয়ে কথা হবে যিনি কোনও বাধাকেই নিজের সাফল্যের পথে দাঁড়াতে দেননি।

IFS তমালি সাহা

আজ এই প্রতিবেদনে কথা হবে বাংলার মেয়ে তমালি সাহাকে নিয়ে। এই তমালি সাহাকে নিয়ে বাংলার মানুষের গর্বের শেষ নেই। মাত্র ২৩ বছর বয়সে IFS অফিসার হওয়া কিন্তু মুখের কথা নয়। কিন্তু এই তমালি তা করে দেখিয়েছেন। সবথেকে বড় কথা UPSC পরীক্ষা হল ভারতের সবথেকে কঠিনতম পরীক্ষা। কিন্তু এই পরীক্ষায় মাত্র একবারের প্রচেষ্টাতেই সফল হয়ে সকলকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে তমালি। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই কিন্তু দিনের আলোর মতো সত্যি।

প্রথম প্রচেষ্টাতেই UPSC ক্লিয়ার

   

এই তমালি সাহাকে দেখলে যে কেউ ক্রাশ খেয়ে যেতে পারেন । তিনি যেমন রূপে লক্ষ্মী তেমনই কর্মেও এক প্রকার নিপুনা। UPSC পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেই প্রথম প্রচেষ্টাতে ৯৪ তম স্থান অর্জন করেন এই তমালি। মাত্র ২৩ বছর বয়সেই তিনি এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন।

tamali saha

জানা যায়, তমালি সাহা উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বাসিন্দা। সেখান থেকেই তিনি প্রাথমিক শিক্ষা এবং স্কুল জীবন শেষ করেন। এরপর আরও উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হতে কলকাতায় পাড়ি দেন। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রাণিবিদ্যায় স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন তিনি। ২০২০ সালে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন তমালি। ছোট থেকেই নাকি মেধাবী তমালি।

যাইহোক, এরপর যেমন ভাবা তেমন কাজ। পড়াশোনা শেষ হতেই ইউপিএসসি পরীক্ষায় বসার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেন তমালি। এরপর এসে যায় সেই মাহেন্দ্রক্ষণ। ২০২১ সালে পরীক্ষায় বসেন তমালি, সবথেকে বড় কথা, প্রথম প্রচেষ্টায় UPSC ফরেস্ট সার্ভিস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। যেখানে তাঁর র‌্যাঙ্ক ছিল ৯৪। আর এভাবেই মাত্র ২৩-এই তমালি হয়ে ওঠেন আইএফএস অফিসার।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর