আন্ডারওয়াটার অতীত, এবার হাওড়া থেকে মেট্রো ছুটবে সেক্টর ফাইভ অবধি! কবে? প্রকাশ্যে দিনক্ষণ

মেট্রো পরিষেবা যে কোনও শহরের প্রাণবিন্দু। এই মেট্রো পরিষেবা যে কোনও মানুষের জীবনযাত্রাকে এক ধাক্কায় অনেকটাই মসৃণ করে দেয়। যেমনটা শহর কলকাতা। কলকাতায় বিভিন্ন রুটে ছুটে চলেছে মেট্রো পরিষেবা। সম্প্রতি এমন তিনটে মেট্রো পরিষেবা শুরু হয়েছে যা নিয়ে মানুষের আলোচনা শেষই হতে চাইছে না। এক হাওড়া ময়দান টু এসপ্ল্যানেড আন্ডারওয়াটার মেট্রো, নিউ গড়িয়া টু রুবি মেট্রো এবং জোকা-তারাতলা মেট্রোর মাঝেরহাট পর্যন্ত সম্প্রসারণ।

এখন সকলের নজর যেন আটকে রয়েছে দেশের সর্বপ্রথম আন্ডারওয়াটার মেট্রো পরিষেবার দিকে। আপনি জানলে চমকে উঠবেন, চালু হওয়ার মাত্র দু’দিনের মধ্যেই হাওড়া ময়দান থেকে এসপ্ল্যানেড পর্যন্ত নতুন মেট্রো রুটে ১ লক্ষ ৩৫ হাজার যাত্রী সওয়ার হয়েছেন। প্রথম দিনেই ৭০ হাজারের বেশি যাত্রী এই মেট্রো ব্যবহার করেছেন। যাইহোক, এতকিছুর মাঝেও মানুষের প্রশ্ন, কবে থেকে সেক্টর ফাইভ টু হাওড়া ময়দান অবধি মেট্রো পরিষেবা শুরু হবে?

   

এই বিষয়ে এবার বড় আপডেট জানা গেল। আপনিও যদি মেট্রো লাভার হয়ে থাকেন তাহলে আজকের এই প্রতিবেদনটি রইল শুধুমাত্র আপনার জন্য। একের পর এক সমস্যার কারণে জটে আটকে রয়েছে সেক্টর ফাইভ টু হাওড়া ময়দান মেট্রো পরিষেবা। তার মধ্যে সবথেকে বড় কারণ হল বউবাজার। এমনিতে মেট্রোর কাজ চলাকালীন ভয়ে কাঁপছেন বউবাজার এলাকার বাসিন্দারা। ইতিমধ্যে ভারী মেশিন ব্যবহার করার জেরে বহু বাড়িতে ফাটল দেখা দিয়েছে। অনেকেই আছেন যারা প্রাণভয়ে অন্যত্র বাস করতে শুরু করেছেন। তবে এই মেট্রো পরিষেবা নিয়েই সামনে এল আরও বড় তথ্য যা আপনারও জেনে রাখা জরুরি বৈকি।

হাওড়া থেকে সেক্টর ফাইভ অবধি মেট্রো

শোনা যাচ্ছে, সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে চলতি বছরেই মেট্রোর চাকা গড়াতে পারে এই দীর্ঘ প্রতিক্ষিত মেট্রো রুটের। মেট্রোরেল সূত্রে জানা গেছে, বউবাজারে ক্ষতিগ্রস্ত টানেল মেরামতির কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। সব ঠিক থাকলে আগামী অক্টোবরের মধ্যে সেই কাজ শেষ হয়ে যাবে। নভেম্বর-ডিসেম্বর থেকে সল্টলেক সেক্টর ফাইভ-হাওড়া ময়দান মেট্রো পরিষেবা চালু হতে পারে। পরিকল্পনা অনুযায়ী, অক্টোবরের মধ্যে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো করিডরের পুরো অংশে পরিষেবা শুরু করার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে। চলছে জোরকদমে কাজ। ফলে এই মেট্রো পরিষেবা পাওয়ার জন্য আর বেশিদিন অপেক্ষা করতে হবে না কাউকে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর