অর্পিতা পার্থর কে হন? অবশেষে সামনে এল সম্পর্ক! জেনে ‘থ’ হাইকোর্ট থেকে শুরু করে ED

সম্পর্কের সমীকরণই কার্যত বদলে গেল রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee) ও তাঁর বান্ধবী অর্পিতা মুখার্জির (Arpita Mukherjee)। বর্তমান সময়ে দুজনেই এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি (SSC Scam) মামলায় জেলে রয়েছেন। এদিকে অধস্তন আদালতে ইডির (Enforcement Directorate) চার্জশিটে তাঁর নাম না থাকার কারণ উল্লেখ করে প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের আইনজীবী মঙ্গলবার কলকাতা হাইকোর্টে (Calcutta High Court) তাঁর মক্কেলকে নির্দোষ দাবি করেন। তবে এরই মাঝে পার্থর আইনজীবী আদালতে জানালেন, পার্থ নাকি অর্পিতার কাকা হন। হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন।

কেন্দ্রীয় এজেন্সির আইনজীবী মুখবন্ধ খামে হাইকোর্টে একটি রিপোর্ট জমা দেন। বুধবার ফের বিচারপতি তীর্থঙ্কর ঘোষের এজলাসে জামিনের আবেদনের শুনানি হবে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। এদিকে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের আইনজীবী সন্দীপন গঙ্গোপাধ্যায় জানান, প্রাক্তন মন্ত্রীর বাড়ি থেকে যে নগদ টাকা ও সোনার গয়না উদ্ধার হয়েছে, তা বাজেয়াপ্ত করা হয়নি। সন্দীপন আরও জানিয়েছেন যে তদন্তের সময় ED-র স্ক্যানারে আসা কোনও সংস্থায় পার্থ চট্টোপাধ্যায় শেয়ারহোল্ডার ছিলেন না। আইনজীবী আরও বলেন, সহ-অভিযুক্ত অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সম্পর্ক ব্যবসায়িক সম্পর্কের বাইরে নয়।

   

বিচারপতি তীর্থঙ্কর ঘোষ যখন জিজ্ঞাসা করেন যে অর্পিতার সঙ্গে পার্থর ঠিক কীরকম সম্পর্ক ছিল? তখন পার্থর আইনজীবী দাবি করেন যে পার্থ অর্পিতার মধ্যে কাকা-ভাইজির সম্পর্ক ছিল। অর্পিতার নামে ৩৯টি এলআইসি পলিসি রয়েছে জানিয়ে আইনজীবী বলেন, “বাজেয়াপ্ত করা এলআইসি পলিসিও ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে করা হয়েছিল।” আইনজীবীর কথায়, “পার্থ চট্টোপাধ্যায় ওই নীতির নমিনি ছিলেন। পার্থ চট্টোপাধ্যায় (৭২) সম্পর্কে হাইকোর্টে একটি সংক্ষিপ্ত নোটও জমা দিয়েছিলেন, যেখানে তিনি বলেছিলেন যে তিনি এক বছর সাত মাস ধরে হেফাজতে রয়েছেন পার্থ।

arpita partha

আইনজীবীর দাবি, ২০১২ সালে শান্তিনিকেতনে কেনা বাংলো ছাড়া তাঁর বিরুদ্ধে আর কিছু খুঁজে পায়নি ইডি। শিক্ষক নিয়োগ মামলার সঙ্গে এর কী যোগসূত্র রয়েছে? প্রশ্ন তোলেন আইনজীবী। আইনজীবী জানান, এই মামলায় অভিযুক্তদের পরিবর্তে সাক্ষী হিসেবে নাম দেওয়া হয়েছে এবং পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে টার্গেট করা হচ্ছে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর