চীনকে বড় ঝটকা! অরুণাচলে এবার যা করল ভারত, ভয়ে থরথর করে কাঁপবে বেজিং

বড় উপহার পেতে চলেছে রাজ্য (State)। আর এই বড় উপহার দেবেন খোদ দেশের প্রধানমন্ত্রী (Prime Minister) নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। আসলে আজ শনিবার ১৩ হাজার ফুট উচ্চতায় নির্মিত বিশ্বের দীর্ঘতম টানেলের (Tunnel) উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রধানমন্ত্রী মোদী সেলা টানেলটি জাতির উদ্দেশে উৎসর্গ করবেন।

আর এই ঐতিহাসিক ঘটনা ঘটতে চলেছে অরুণাচল প্রদেশে (Arunachal Pradesh)। এই টানেলটি তাওয়াংয়ের (Tawang) সমস্ত আবহাওয়ায় সংযোগ সরবরাহ করবে। এর ফলে চিন (China) সীমান্তের দূরত্ব প্রায় ১০ কিলোমিটার কমে যাবে। প্রধানমন্ত্রী ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে এই সুড়ঙ্গপথের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন। ব্যাখ্যা করুন যে এটি বিশ্বের দীর্ঘতম দুই লেনের টানেল যা ১৩,০০০ ফুট উচ্চতায় নির্মিত হয়েছে। এটি তৈরিতে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। এই সুড়ঙ্গে তুষারপাতের কোনও প্রভাব পড়বে না। প্রকল্পটি কেবল এই অঞ্চলে দ্রুত এবং আরও দক্ষ পরিবহন রুট সরবরাহ করবে না, সেইসঙ্গে দেশের জন্য কৌশলগত গুরুত্ব পালন করবে এই বিশেষ টানেলটি।

   

চিন সংলগ্ন অরুণাচল প্রদেশে, এই টানেলটি শীঘ্রই তাওয়াং সেক্টরের অগ্রবর্তী অঞ্চলে পৌঁছানোর ক্ষেত্রে গেম-চেঞ্জার হিসাবে প্রমাণিত হবে। এই টানেল এলএসি-তে ভারতীয় সেনার ক্ষমতা বাড়াবে। এর ফলে ভারতীয় সেনা ও অস্ত্রশস্ত্রের যাতায়াত সহজ হবে। এ ছাড়া নিরাপত্তার পাশাপাশি এ অঞ্চলের অর্থনৈতিক উন্নয়নও হবে। এটি প্রায় ৮২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হয়েছে। সেলা টানেল প্রকল্পে দুটি টানেল রয়েছে। প্রথম সুড়ঙ্গটি একটি একক টিউব টানেল যা ৯৮০ মিটার দীর্ঘ। ১৫৫৫ মিটার দীর্ঘ দ্বিতীয় সুড়ঙ্গটি টুইন টিউব টানেল। এটি বিশ্বের দীর্ঘতম টানেলগুলির মধ্যে একটি যা ১৩,০০০ ফুটেরও বেশি উচ্চতায় নির্মিত হয়েছে।

sela tunnel

এই টানেলটি নতুন অস্ট্রিয়ান টানেলিং পদ্ধতি ব্যবহার করে নির্মিত হয়েছে এবং সর্বোচ্চ মানের সুরক্ষা বৈশিষ্ট্যগুলি অন্তর্ভুক্ত করে। প্রধানমন্ত্রী মোদী অরুণাচল প্রদেশে ৪১ হাজার কোটি টাকারও বেশি মূল্যের বেশ কয়েকটি উন্নয়নমূলক প্রকল্পের উদ্বোধন ও শিলান্যাস করবেন। প্রধানমন্ত্রী মোদী অরুণাচল প্রদেশে বেশ কয়েকটি সড়ক প্রকল্প সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প জাতির উদ্দেশে উৎসর্গ করবেন।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর