হাওড়া থেকে মেট্রো চেপে গঙ্গার নীচ দিয়ে যেতে লাগবে মাত্র এত টাকা! প্রকাশ্যে এল ভাড়ার তালিকা

তিনটি মেট্রো রুট চালু হওয়ার অপেক্ষা যেন শেষ ই হতে চাইছে না বাংলার মানুষের। বিশেষ করে যারা মেট্রো লাভার, তাদের যেন উৎকণ্ঠার শেষ নেই। সবথেকে বড় কথা, ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর (Kolkata Metro Line 2) হাওড়া ময়দান-এসপ্ল্যানেড সেকশন এবং কবি সুভাষ-এয়ারপোর্ট লাইনের নিউ-গড়িয়া (New garia) অংশটি চালু হলে দু-তিনটি মেট্রো লাইন নেটওয়ার্কিং এবং একটি টোকেন দিয়ে করিডর পেরিয়ে যাতায়াতের মতো ঘটনা কলকাতায় প্রথম হবে।

এদিকে কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে, নতুন ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো লাইনের মূল ভাড়া হবে ৫ টাকা এবং সর্বোচ্চ (এসপ্ল্যানেড পর্যন্ত) ১০ টাকা। ৪.৮ কিলোমিটার দীর্ঘ এসপ্ল্যানেড-হাওড়া ময়দান সেকশনটি ভারতের প্রথম আন্ডার ওয়াটার মেট্রো হবে। এটি কিন্তু কার্যকরভাবে পশ্চিমে হাওড়া থেকে ইএম বাইপাসের রুবি ক্রসিং পর্যন্ত উত্তর-দক্ষিণ মেট্রো হয়ে দ্রুততম যাতায়াতের বিকল্প হবে, যা ভারতের প্রাচীনতম মেট্রো লাইন।

   

ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর টার্মিনাল হাওড়া ময়দান স্টেশন থেকে দক্ষিণেশ্বর, যা উত্তর-দক্ষিণ লাইনের উত্তর টার্মিনাস, বরানগর ও নোয়াপাড়া এবং নিউ গড়িয়া পর্যন্ত ভাড়া ৩০ টাকা। এখান থেকে নিউ গড়িয়া-এয়ারপোর্ট (অরেঞ্জ) লাইনে চেপে ৫.৪ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে রুবি ক্রসিং অবধি (হেমন্ত মুখোপাধ্যায় স্টেশন) যাওয়া যাবে।

underwater metro
যদিও ভাড়া সংক্রান্ত কোনোরকম চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়নি মেট্রোরেলের তরফে। কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে, হাওড়া ময়দান থেকে এসপ্ল্যানেড পর্যন্ত যাত্রীদের দিতে হবে ১০ টাকা। তবে এর ন্যূনতম ভাড়া হলো ৫ টাকা। অর্থাৎ হাওড়া ময়দান বা হাওড়া থেকে গঙ্গার তল দিয়ে মহাকরণ পর্যন্ত যাওয়ার জন্য যাত্রীদের খরচ করতে হবে মাথাপিছু পাঁচ টাকা করে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর