বন্দে, অমৃত ভারতের পর! এবার বাংলায় তেজস এক্সপ্রেস! হাওড়া নয়, এই রুটে চালু করছে রেল

বর্তমান সময়ে দেশে বেশ কিছু প্রিমিয়াম ট্রেন চালায় ভারতীয় রেল (Indian Railways)। আর এই প্রিমিয়াম ট্রেনের নাম শুনলেই আপনার মাথায় হয়তো প্রথমেই আসবে বন্দে ভারত এক্সপ্রেস (Vande Bharat Express) ট্রেনের নাম। এছাড়াও নতুন করে শুরু হয়েছে অমৃত ভারত এক্সপ্রেস (Amrit Bharat Express)। কিন্তু দেশে আরও একটি দুর্দান্ত ট্রেন চলে। যার নাম হলো তেজস এক্সপ্রেস (Tejas Express)। এই এক্সপ্রেস ট্রেনে উঠলে আপনার মনে হবে যেন কোনো বিমানে উঠে পড়েছেন। অথচ এই ট্রেনের ভাড়া কিন্তু বিমানের থেকে কয়েকগুণ কম। দেশে প্রতিদিন কোটি কোটি মানুষ ট্রেনে যাতায়াত করেন। দেশের যোগাযোগের ক্ষেত্রে ভারতীয় রেলের গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে। এই কারণে, ভারতীয় রেলকে দেশের মেরুদন্ড বলা হয়।

প্রিমিয়াম ট্রেনের মধ্যে রয়েছে তেজস এক্সপ্রেস

সাধেই কিন্তু এই তকমা জোটেনি ভারতীয় রেলের। ভারতীয় রেল মানে এখন উন্নত পরিষেবা, একের পর এক নতুন প্রিমিয়াম ট্রেন। এই প্রিমিয়াম ট্রেনের মধ্যে রয়েছে তেজস এক্সপ্রেস। বর্তমান সময় বাংলার বুকে বন্দে ভারতের মতন ট্রেন দৌড়ালেও তেজস এর মতন প্রিমিয়াম ট্রেন এখনো পায়নি বাংলা। অনেকেই দাবি তুলেছিলেন যাতে তেজস- এর মতো ট্রেন বাংলার বুকে ছোটানো হয়। এবার মনে হচ্ছে সকলের সেই আশা পূরণ হতে চলেছে।

বাংলার এই রুটে ছুটবে তেজস এক্সপ্রেস

   

আপনিও শুনলে খুশিতে লাফাবেন, ভারতীয় রেলের তরফ থেকে এবার আগরতলা থেকে আনন্দবিহার টার্মিনাল পর্যন্ত সাপ্তাহিক একটি তেজস এক্সপ্রেস চালু করা হয়েছে। যে ট্রেনটি পশ্চিমবঙ্গের (West Bengal) নিউ জলপাইগুড়ি (New Jalpaiguri) এবং মালদা টাউন স্টেশনে (Malda Town Station) স্টপেজ দেবে। এই ট্রেনটি চালু হওয়া ফলে উত্তরবঙ্গের (North bengal) যাত্রীদের এবার সরাসরি নতুন দিল্লি পৌঁছানোর রাস্তা অনেক কমে যাবে। এবার ৩৩ ঘণ্টার রাস্তা মাত্র ১৯ ঘণ্টাতেই করতে পারবেন বাংলার মানুষ।

জানা যাচ্ছে, এই ট্রেনটি কিন্তু রোজ রোজ চলবে না। এই ট্রেনটি সপ্তাহে একদিন যাতায়াত করবে। ট্রেন নম্বর ২০৫০১ তেজস এক্সপ্রেস মালদা টাউন রেল স্টেশন থেকে পাওয়া যাবে মঙ্গলবার বিকেল ৩:১০ মিনিটে এবং ট্রেনটি আনন্দবিহার টার্মিনাল পৌঁছাবে পরদিন সকাল ১০:৫০ মিনিটে। অন্যদিকে আনন্দবিহার টার্মিনাল থেকে এই ট্রেনটি ছাড়বে প্রতি শুক্রবার।

tejas express

এখন নিশ্চয়ই ভাবছেন ভাড়া কত? এই বিষয়ে রেলের তরফে জানানো হয়েছে,  মালদা টাউন থেকে আনন্দ বিহার টার্মিনাল পর্যন্ত তৃতীয় শ্রেণীর ভাড়া হলো ৩০৪৫ টাকা, দ্বিতীয় শ্রেণীর ভাড়া ৪১৮০ টাকা এবং প্রথম শ্রেণীর ভাড়া ৫২১৫ টাকা।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর