বিচ্ছিন্ন হবে উত্তরের সঙ্গে দক্ষিণবঙ্গের যোগাযোগ! চলবে না দুটি বিশেষ ট্রেন, জানাল রেল

২৪-এর লোকসভা ভোটের আগে নতুন করে অস্বস্তিতে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল। আগামী ১০ মার্চ ফের একবার ব্রিগেডে মহা সমাবেশের আয়োজন করেছে তৃণমূল দল। আগামী রবিবার শহরে জনগর্জন সভা হওয়ার কথা রয়েছে। কিন্তু তার আগেই তৃণমূল শিবিরে অস্বস্তির ছায়া।

এখন আপনিও নিশ্চয়ই ভাবছেন কী হয়েছে? তাহলে বিস্তারিত জানতে ঝটপট পড়ে ফেলুন প্রতিবেদনটি। তৃণমূলের তরফে রেলের (Indian Railways) কাছে ব্রিগেডে আসার জন্য একটি বিশেষ ট্রেনের আবেদন জানানো হয়েছিল। যদিও শাসক দলের সেই আবেদন নাকচ করে দিল রেল। অর্থাৎ সেদিন ব্রিগেডের জন্য কোনও বিশেষ ট্রেন চলবে না।

   

আসলে কোচবিহার থেকে আলিপুরদুয়ার এবং শিয়ালদার জন্য দুটি বিশেষ ট্রেন চায় তৃণমূল। এমনকি প্রয়োজনীয় টাকায় অবধি মিটিয়ে দেয় তৃণমূল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে দলের আবেদন খারিজ করে দেওয়া হয়। রেলের তরফে চিঠি দিয়ে ইতিমধ্যে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে রাজ্যের শাসক দলকে। উল্লেখ্য, এটাই কিন্তু প্রথম নয়, এর আগে দিল্লিতে বকেয়া আন্দোলনের সময়েও ট্রেন বাতিল করা হয়।

তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ, ‘১০ মার্চ জনগর্জন সভাকে ভয় পাচ্ছে বিজেপি। আলিপুরদুয়ার ও কোচবিহার থেকে দলীয় কর্মীদের কলকাতায় আনতে বিশেষ ট্রেনের আবেদন খারিজ করে দেওয়া হয়েছে। সিকিউরিটি ডিপোজিট নিয়েও পরিষেবাগত সমস্যার কারণ দেখিয়ে আবেদন খারিজ করে দেওয়া হয়েছে।’

এমনকি সোমবার সর্বভারতীয় তৃণমূলের এক্স হ্যান্ডেলে অভিযোগের সুরে দাবি করা হয়েছে, ষড়যন্ত্র করে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার তাদের আবেদন নামঞ্জুর করেছে। এ ক্ষেত্রে উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলের তরফে দেওয়া একটি জবাবকে সমাজমাধ্যমে তুলে ধরেছে তারা। পাশাপাশি, তাদের আবেদনপত্রের কপিও তুলে ধরা হয়েছে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর