রইবে না কোনও অভিযোগ! এবার ট্রেনে যখনই চাইবেন, তখনই পাবেন সুস্বাদু খাবার! উদ্যোগ রেলের

ট্রেনে (Train) ভ্রমণ এবং খাবার, একদম মারাত্মক যুগলবন্দী। ট্রেনে ভ্রমণের পাশাপাশি কিছু খাবার খাওয়ার মজাই একদম আলাদা। খাবার আর রেলে ভ্রমণ একে অপরের পরিপূরক। অনেকেই আছেন যারা বাড়ি থেকে খাবার বানিয়ে ট্রেনে খান। আবার অনেকেই আছেন যারা ট্রেনের খাবার খান।

তবে ভারতীয় রেলে (Indian Railways) যে খাবার পাওয়া যায় তা নিয়ে প্রায়ই যাত্রীদের কাছ থেকে অভিযোগ উঠে আসে। ট্রেন ভ্রমণের সময়, যাত্রীরা ভাল খাবারের সন্ধান করেন। আপনারও কি এই স্বভাব আছে? তাহলে আপনার জন্য রইল এক দুর্দান্ত খবর। আপনি নিশ্চয়ই সুইগি (Swiggy) এবং জোম্যাটোর (Zomato) নাম শুনেছেন বা আপনি নিশ্চয়ই এই ফুড ডেলিভারি অ্যাপগুলি থেকে খাবার অর্ডার করেছেন কখনও না কখনও? এখন ট্রেনে খাবার পৌঁছে দেওয়ার জন্য সুইগির সঙ্গে হাত মেলালো আইআরসিটিসি (Indian Railway Catering and Tourism Corporation)।

   

ট্রেনে খাবার ও অন্যান্য পরিষেবা সরবরাহকারী সংস্থা আইআরসিটিসি বর্তমানে রেল যাত্রীদের যাত্রা আরামদায়ক এবং উপভোগ্য করতে নতুন পদক্ষেপ নিচ্ছে। তবে এবার Swiggy-র সঙ্গে হাত মিলিয়ে যাত্রীদের আসনে কাঙ্ক্ষিত খাবার পৌঁছে দেওয়ার চুক্তি করেছে প্রতিষ্ঠানটি। আপাতত চারটি শহর থেকে এই পরিষেবা চালু করা হবে। এই শহরগুলি হল বেঙ্গালুরু, ভুবনেশ্বর, বিজয়ওয়াড়া এবং বিশাখাপত্তনম। এই চারটি শহরকে এই পরিষেবার প্রথম পর্যায়ে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তবে চিন্তা নেই, ধীরে ধীরে দেশের অনেক শহরে এই পরিষেবা পাওয়া যাবে।

swiggy irctc

  • যাত্রীরা প্রথমে IRCTC-র সাইটে পিএনআর দিয়ে এই পরিষেবা পাওয়া যায় এমন রেস্তোঁরাগুলি বেছে নিতে হবে।
  • একবার আপনি রেস্তোঁরাটি বেছে নেওয়ার পরে, আপনার খাবার (ভেজ বা নন-ভেজ) বেছে নিন।
  • খাবারের জন্য অনলাইনে টাকা প্রদান করুন বা ক্যাশ অন ডেলিভারের বিকল্পটি বেছে নিন।
  • আপনার নিকটস্থ স্টেশন থেকে সরাসরি আপনার আসনে পৌঁছে যাবে খাবার।

IRCTC বিএসইতে একটি ফাইলিংয়ের মাধ্যমে সুইগির সাথে তার সহযোগিতার ঘোষণা করেছিল। সুইগির মূল সংস্থা বান্ডেল টেকনোলজিস প্রাইভেট লিমিটেডের মাধ্যমে এই অংশীদারিত্বটি সহজতর করা হবে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর