DA অতীত, এবার অন্য আন্দোলন! পথে নামছেন ৫০ হাজার মহিলা, চাপে পশ্চিমবঙ্গ সরকার

একাধিক দাবিতে দেশের বিভিন্ন অংশে বিক্ষোভে সামিল হয়েছেন আশা কর্মীরা। বাদ যায়নি বাংলাও। লক্ষনউ থেকে শুরু করে বাংলা, চারিদিকে শুরু হয়েছে বিক্ষোভ। কয়েক হাজার আশা কর্মী কর্মবিরতির ডাক দিয়েছেন। হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র রাজ্য তথা দেশজুড়ে ব্যাপক শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

এখন আপনিও নিশ্চিয়ই ভাবছেন যে আচমকা কেন এই কর্মবিরতি? তাহলে বিস্তারিত জানতে ঝটপট পড়ে ফেলুন আজকের এই প্রতিবেদনটি। এমনিতেই একদিকে যখন বকেয়া ও বর্ধিত হারে ডিএ-র (Dearness allowance) দাবিতে লাগাতার কয়েকশো দিন ধরে বিক্ষোভ দেখিয়েই চলেছেন সরকারি কর্মীরা। দফায় দফায় সরকারি কর্মীদের বিক্ষোভকে ঘিরে অশান্ত হয়ে উঠেছে বাংলা। তবে এখন এই ডিএ ছাড়াও এবার রাজ্য সরকারের কাছে একাধিক দাবিতে কর্মবিরতির ডাক দিয়েছেন আশা কর্মীরা।

   

আর এই কর্মবিরতির ডাক দিয়েছেন কমপক্ষে ৫০ হাজার আশা কর্মী। শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে এই বিক্ষোভ। এদিকে বেতন বৃদ্ধি সহ একাধিক দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন আশাকর্মীরা বলে খবর। বৃহস্পতিবার আশা কর্মীরা পশ্চিমবঙ্গ আশাকর্মী ইউনিয়নের ডাকে ব্লক থেকে মহাকুমা ও জেলাস্তরে নোটিশ দিয়ে কর্মবিরতির কথা জানান। যদি তাঁদের দাবি না মানা হয় তাহলে আরও বৃহত্তর আন্দোলনের পথে হাঁটা হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন কর্মীরা।

asha workers

আশা কর্মীদের অভিযোগ, সরকারি নিয়ম থাকা সত্ত্বেও অতিরিক্ত কাজের জন্য তাদের টাকা দেওয়া হয়না। খুব কম ভাতার বিনিময়ে তাদের কাজ করতে হচ্ছে। এছাড়া দেওয়া হচ্ছে না অন্যান্য সরকারি সুযোগ-সুবিধাও। আগেই এই বিষয়ে সরকারকে অবগত করা হলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। যে কারণে এবার ৫০ হাজার কর্মী রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। এদিকে আশা কর্মীদের এহেন সিদ্ধান্তের কারণে স্বাস্থ্য পরিসেবায় যে ব্যাপক চাপ পড়বে তা আর নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর