বাবা-মা বলেছিলেন তুমি সময় নষ্ট করছ! নিজের দমে ব্যবসা করে আজ ৬০০ কোটির মালিক ছেলে

১৬ বছর বয়সে যখন বেশিরভাগ কিশোর-কিশোরী খেলাধুলায় ব্যস্ত থাকে বা তাদের ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখে, সেই বয়সেই কেউ কেউ আবার সফলতার পতাকাও তুলে ফেলে। এরকমই একটি গল্প ইন্ডিয়াগেম ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও বিশাল গোন্ডালের। বলে দিই, Indiagame.com কম্পিউটার এবং মোবাইল গেম তৈরি করে। ১৯৭৬ সালে জন্মগ্রহণ করা বিশালের শৈশব কেটেছে কম্পিউটার শিখতে এবং অনেক ডিজাইনিং কৌশল শিখতে। তিনি শুধু একজন উদ্যোক্তা নন, একজন বিনিয়োগকারীও। বর্তমানে তিনি GOQii এর প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও।

যখন তিনি তাঁর ডিজাইন করা গেমটি নিয়ে পেপসির অফিসে পৌঁছেছিলেন, তখন তাঁর প্রেজেন্টেশন দেখে সবাই খুশি ছিল। সেই সময় তাঁর স্বপ্ন উড়ান লাগে এবং তার চোখে বড় উচ্চাকাঙ্ক্ষা দেখা দেয়। তিনি যেই কম্পিউটার গেমটি ডিজাইন করেছিলেন তা সত্যিই প্রশংসনীয় ছিল। মার্কেটিং প্রধানের সঙ্গে দেখা করতে এক ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়েছিল বিশালকে। শুরুতে মার্কেটিং হেড বিশালের গেম নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন, কিন্তু বিশালের আত্মবিশ্বাস দেখে তিনি দেখা করার সিদ্ধান্ত নেন।

বিশালের গেমটি দেখার পর, তার সিনিয়র ম্যানেজমেন্ট খুবই মুগ্ধ হয়েছিলেন এবং বিশালের গেমটি ৫ লক্ষ টাকায় কিনেছিলেন। এটি ছিল তার প্রথম ব্যবসায়িক চুক্তি এবং এরপর তাঁকে আর কোনদিনও পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। এরপর প্রোগ্রামিং বই পড়ে মোবাইল ও কম্পিউটার গেম তৈরি শুরু করেন বিশাল। তার মুম্বাই ভিত্তিক কোম্পানিটি মাত্র পাঁচ জনের একটি দল দ্বারা শুরু হয়েছিল এবং কয়েক বছরের মধ্যে এটি দেশের বৃহত্তম গেমিং কোম্পানিতে পরিণত হয়েছিল।

গেমিং হল ভারতে বিনোদনের অন্যতম জনপ্রিয় মাধ্যম। বলিউড যখন বুঝতে পারে যে গেমিং-এ অনেক শক্তি আছে, তখন থেকে তাঁরাও এটি সিনেমায় ব্যবহার করা শুরু করে। বিশাল জানান, আমরা তিস মার খানের মতো একটি চলচ্চিত্রের জন্য গেম তৈরি করেছিলাম। তিনি জানান, ভারতে 3G প্রযুক্তির আবির্ভাবের সাথে সাথে ব্রডব্যান্ড বেস প্রসারিত হয়েছে এবং আমাদের নেটওয়ার্ক বৃদ্ধিতে সাহায্য করেছে। ছোট শহরগুলিও এই গেমিং সংস্কৃতি গ্রহণ করছে। এবং আমাদের দেশে ক্রিকেট এবং বলিউডের ক্রেজ অনেক বেশি এবং এটি তাদের অনেক খেলাধুলা করতে অনুপ্রাণিত করেছে।

IndiaGames.com তার গ্রাহকদের মোবাইল ফোন, আইপ্যাড, সামাজিক গেমিং এবং নেটওয়ার্কিং সাইটগুলির মতো বিস্তৃত প্ল্যাটফর্ম অফার করে৷ UTV, Cisco এবং Adobe তাদের এই উদ্যোগে বিনিয়োগ করেছে। ষোল বছর বয়সে শুরু হওয়া এই উদ্যোগ বিশালকে সমালোচনার জবাব দিতে শিখিয়েছে।

বিশাল বলেন “যখন আমি গেমিং ব্যবসায় নামার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, তখন আমার পরিবারের সদস্যরা ভেবেছিল আমি আমার সময় নষ্ট করছি। আমি দৃঢ়ভাবে তাদের বলি যে, আমি সঠিক পথেই আছি। সেই সময় বাবা-মা চেয়েছিলেন তাঁর সন্তান পারিবারিক ব্যবসায় যাবে কিন্তু আমি আমার তা করিনি। আমি বিশ্বাস করি যে সফল হতে হলে আপনাকে অবশ্যই ঝুঁকি নিতে হবে এবং আপনার স্বপ্নে বিশ্বাস করতে হবে।”

vishal gondal with narendra modi 768x567

যাদের স্বপ্ন উচ্চ এবং যাদের বিশ্বাস দৃঢ়, তারা সকল নিয়ম ভেঙে সাফল্যের শিখরে পৌঁছায়। প্রায়শই মানুষ সাফল্যের দরজায় পৌঁছানোর আগেই তাদের বিশ্বাস ছেড়ে দেয়। তাই শেষ পর্যন্ত যাদের আস্থা আছে তারাই আগামী প্রজন্মের জন্য আদর্শ।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button