‘ঝুকেগা নেহি”, নিষেধাজ্ঞা স্বত্বেও রাশিয়ার সঙ্গে অটুট বন্ধুত্ব! তেল আমদানিতে বাজিমাত ভারতের

ইতিমধ্যে পূর্ন হতে চলেছে রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধের ১০০ তম দিন। যুদ্ধ থামার তো কোনো লক্ষণ নেইই, বরঞ্চ বেশ আশেপাশে ছড়িয়ে পড়ছে এই যুদ্ধ। যুদ্ধের কারণে বিশ্বের অধিকাংশ দেশ অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে রাশিয়ার ওপর। একই সাথে রাজনৈতিক সম্পর্কও ছিন্ন করে রাশিয়ার সাথে। কিন্তু সারা বিশ্বের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন হলেও ভারতের সাথে সম্পর্কে একটুও সমস্যা আসেনি।

বরঞ্চ এই নিষেধাজ্ঞার তোয়াক্কা না করেই রাশিয়ার থেকে তেল আমদানি ক্রমশ বাড়ছে। আর্থিক বাজার এবং অবকাঠামো সম্পর্কিত তথ্য প্রদানকারী মার্কিন এবং ব্রিটিশ সরবরাহকারী রিফিনিটিভের অনুমান অনুসারে মে মাসেই রাশিয়া থেকে ভারতের অপরিশোধিত তেল আমদানির পরিমাণ পৌঁছেছে ৩০.৩৬ লাখ মেট্রিক টনে। প্রসঙ্গত গত বছর, ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের আগে ভারত মাত্র ৩,৮২,৫০০ মেট্রিক টন অপরিশোধিত তেল আমদানি করেছে।

রিফিনিটিভের মতে, ইউক্রেন যুদ্ধের পর থেকে ভারত রাশিয়ার কাছ থেকে ৪০.৮ লাখ মেট্রিক টন তেল কেনে। রাশিয়ার ইউরালস অয়েল বর্তমানে প্রায় ৯৫ ডলার প্রতি ব্যারেল তেল বিক্রি করছে। অন্যদিকে আন্তর্জাতিক বাজারে এই তেলের দাম ব্যারেল প্রতি ১১৯ ডলার। তাহলে ভারত বাকি জায়গা থেকে কিনবেই বা কেনো!

আমাদের দেশ ভারত এমন একটি দেশ, যারা রাশিয়ার বিরুদ্ধে এখনো অবধি কোনো নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করেনি। অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেন, কানাডা সহ অনেক পশ্চিমা দেশ ইতিমধ্যে রাশিয়ান অপরিশোধিত তেল আমদানি নিষিদ্ধ করেছে, অন্যদিকে রাশিয়া নিজেই শর্ত পূরণ না করার কারণে অনেক দেশে সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে। এ কারণে সারা বিশ্বে তেল- এবং গ্যাসের দামে ব্যাপক পরিমানে বেড়েছে। তবে রাশিয়া এখন বেশ সস্তায় তেল ও গ্যাস বিক্রি করতে শুরু করেছে। এরফলে ভারতসহ বেশ কয়েকটি দেশ এর সুবিধা নিয়েছে।

crude oil

নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন ভারত বিশ্বের সামনে মোটেই মাথা নত করেনি। মে মাসেই রাশিয়া থেকে ৩০.৩৬ লক্ষ মেট্রিক টন তেল কিনে ভারত প্রমাণ করে যে, তারা কারো চাপের তোয়াক্কা করেনা। ভারতের জন্য যা ঠিক হবে তাই করবে বর্তমানের কেন্দ্র সরকার। যুদ্ধ শুরুর আগে ভারত রাশিয়ার থেকে খুব বেশি পরিমাণ তেল না কিনলেও এখন রাশিয়া ভারতের চতুর্থ বৃহত্তম তেল সাপ্লায়ার। তবে এই নিয়ে Refinitiv-এর মতে, ভারত এপ্রিল মাসে রাশিয়া থেকে প্রায় ১০.০১ লক্ষ মেট্রিক টন তেল কেনে। তবে শুধু তেলই নয়, রাশিয়া থেকে গ্যাসের আমদানিও বেড়েছে বহুলাংশে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button