আবর্জনা ভেবে ফেলে দেবেন না, গোবর দিয়েই কামাতে পারবেন ভালো টাকা! জানুন উপায়

আপনার বাড়িতেও কী গোবর (Cow Dung) রয়েছে? ফেলে দিচ্ছেন সেটি? গোবরের সঠিক মূল্য বুঝতে পারলে আপনি আর তা করবেন না। গোবর যে ঠিক কতটা মূল্যবান সেটাই জানাতে চলেছি আপনাদের। জানলে অবাক হবেন কিন্তু সারা দেশে সার ব্যবস্থাপনার উদ্যোগকে এগিয়ে নিতে ন্যাশনাল ডেইরি ডেভেলপমেন্ট বোর্ডের সম্পূর্ণ মালিকানাধীন একটি সহযোগী সংস্থা NDDB তাদের প্ল্যান্টে দুধ তৈরির সময় বিদ্যুতের চাহিদা মেটাতে গোবর কিনতে শুরু করেছে। কিন্তু আপনি কীভাবে আয় করবেন গোবর থেকে?

জৈব সার : ক্ষতিকারক কেমিক্যাল সার নয়, বর্তমানে জৈব সারের প্রচলন বেড়েছে সারা বিশ্বেই। আর তারই মধ্যে NDDB সয়েল লিমিটেড গোবর থেকে তৈরি করছে বায়োগ্যাস। আর সেখান থেকে তৈরি হচ্ছে প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ। এছাড়া বিভিন্ন শিল্পে একটি দরকারী উপাদান হিসাবে গোবরকে ব্যবহার করার সুযোগগুলিও খুঁজে বের করেছে সংস্থাটি।

কীভাবে গোবর হয়ে উঠছে আয়ের উৎস : কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পুরুষোত্তম রুপালা জানিয়েছেন যে, এনডিডিবি(NDDB) গোবরকে প্রধান উপাদান হিসেবে নিয়ে তৈরি করেছে একটি সংস্থা। বারাণসীতে ডেইরি চালাতে গোবরের থেকে তৈরি হচ্ছে প্রয়োজনীয় শক্তির উৎপাদন। দুগ্ধ প্রক্রিয়াকরণে যে শক্তির প্রয়োজন হয় তা গোবর দিয়ে কাজ শুরু করেছে। যে গোবরকে এতদিন আবর্জনা বা নোংরামির কারণ মনে করতো সবাই সেটাই এখন অর্থ উপার্জনের কারণ হয়ে উঠেছে।

গোবর বিক্রি করেই হতে পারে বাড়তি আয় : কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আরো জানান যে, কৃষকরা এবার থেকে গোবর সরবরাহ করেই বাড়তি আয় করতে পারে। এছাড়া আরো অনেক বেসরকারী কোম্পানিও এই উদ্যোগে সামিল হয়েছে।

স্লারি ভিত্তিক কম্পোস্ট তৈরির কাজ : স্লারি ভিত্তিক সারের ব্যবহারকে আরো উন্নত করার জন্য ধীরে ধীরে রাসায়নিক সারের জায়গায় জৈব সারকে প্রতিস্থাপন করা হবে। আর এর ফলে বিদেশ থেকে সারের আমদানিও হ্রাস পাবে। সারা দেশে বহু সংস্থা এই সংক্রান্ত গবেষনার সাথে জড়িত।

কেন্দ্রীয় সরকার কী উদ্যোগ নিয়েছে : এনডিডিবি সভাপতি মিনেশ শাহ বলেছেন যে, এবার গোবরের ওপর গবেষণা চালিয়ে বাজারজাত করা হবে গোবরের থেকে তৈরি বিভিন্ন ধরেনের পণ্য। যা বিক্রি করে গ্রাম থেকেও রাজস্ব উৎপাদনের মডেল স্থাপন করবে সরকার । আর সমস্ত প্রকল্পকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য সরকার বিপুল বিনিয়োগ করতে চলেছে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button