অপা’র সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন অর্পিতার মা, পার্থকে নিয়ে দিলেন বিস্ফোরক বয়ান

রাজ্যে সামনে এসেছে SSC দূর্নীতি। পার্থ চট্টোপাধ্যায় হলেন এই দুর্নীতির প্রধান মাথা। ED পার্থর বান্ধবী অর্পিতার বাড়িতে হানা দিয়ে উদ্ধার করেছে কাঁড়ি কাঁড়ি টাকা। আর সেই নিয়ে গত দশদিন ধরে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন তিনি এবং তার বিশেষ ঘনিষ্ঠ বান্ধবী অর্পিতা মুখার্জি।

পার্থর সঙ্গে অর্পিতার সম্পর্ক নিয়ে বিস্তর জলঘোলা হচ্ছে। অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকেই উদ্ধার হয়েছে রাশি রাশি টাকা এবং সম্পত্তি। এই দুর্নীতি প্রকাশ্যে আসার পর সারা ভারতের কাছে মুখ পুড়েছে বাংলার। তবে এবার বিতর্কের মাঝেই মুখ খুলেছেন অর্পিতা মুখার্জির মা মিনতি মুখার্জি। তিনি জানান যে, পার্থ চ্যাটার্জী তার বাড়িতেও এসেছিলেন কিন্তু মেয়ের সাথে তার সম্পর্ক নিয়ে কিছুই জানতেন না তিনি।

মিনতি মুখার্জি বিতর্কের মাঝে বলেন যে, পার্থ চ্যাটার্জী একবারই তাদের বেলঘরিয়ার বাড়িতে গিয়েছিলেন। প্রথমবার তাকে দেখে বেশ ইতস্তত বোধ করেছিলেন তিনি। তবে দূর্নীতি পরায়ণ পার্থর সঙ্গে একবারই কথা হয়েছিল তার। খুবই সামান্য কথা হয় সেদিন।

পার্থ চ্যাটার্জী অবশ্য সেদিন বেশিক্ষণ থাকেননি সেখানে। তবে সেই একবারই দেখা হয় তার সাথে, তারপর আর দেখা হয়নি তাদের। বর্তমানে মেয়ের সাথে পার্থ চ্যাটার্জীর নাম জড়ানো দেখে কিছুটা বিস্মিত হয়েছেন তিনি। তাদের মধ্যে যে এমন সম্পর্ক থাকতে পারে সেটা নাকি ভাবতেই পারেননি তিনি। এছাড়া ৭০ বছরের মানুষের সাথে যে তার মেয়ের সম্পর্ক গড়ে উঠতে পারে সেটা নাকি তার কল্পনারও অতীত।

ইতিমধ্যেই SSC দুর্নীতির জন্য গারদের ওপারে রয়েছেন পার্থবাবু। সাথে তার দোসর অর্পিতাও রয়েছেন লকআপে। দফায় দফায় জেরা করা হচ্ছে তাদের দুজনকে। ইডির হানায় অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছে নগদ ৫০ কোটি টাকা। আর তার সাথে মিলেছে সোনা, রুপো এবং বৈদেশিক মুদ্রা।

arpita

ED এর তদন্তকারী দল সেখানেই থেমে থাকেনি, এরপর তদন্ত চালাতেই সামনে এসেছে পার্থ এবং অর্পিতার যৌথ সম্পত্তির। সাথে তিনটি ডায়েরিও উদ্ধার করে পুলিশ। টাকা লেনদেনের সমস্ত হিসাব রয়েছে সেখানে। এবার ED খতিয়ে দেখছে ডায়েরিতে কার হাতের লেখা রয়েছে। তদন্ত যে আরো বহুদূর গড়াবে এবং আরো কিছু রাঘবোয়ালদের পর্দা ফাঁস হবে সে ব্যাপারে নিশ্চিত কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button