লটারিতে ১ কোটি জিতলেও করেননি দাবি, ফের যা ঘটল নলহাটিতে… শুনলে অবাক হবেন

বড়োলোক হতে কে না চায়! কিন্তু সবার জন্য তো আর এই রাস্তা সহজ হয়না। আবার কারো কারো ক্ষেত্রে রাস্তা এতোটাই কঠিন হয় যে বেছে নেয় বিভিন্ন ধরণের ভাগ্য পরীক্ষার খেলা। এরকমই একটা বিষয় হলো লটারি। এটি এমনই একটি জিনিস যা যে কোনো সময় যে করাও ভাগ্য পরিবর্তন করে দিতে পারে। ফকির থেকে রাজা হয়ে যেতে পারে যে কেউ।

যদিও এই ফকির থেকে রাজা হওয়ার মত ভাগ্য খুব কম মানুষেরই থাকে। তবে সম্প্রতি নলহাটিতে (Nalhati) এক এমন অদ্ভুত ঘটনা ঘটেছে যাতে চোখ ছানাবড়া সবার। জানা গেছে নলহাটির কোনো এক ভাগ্যবান ব্যক্তি লটারি কেটে এক কোটি টাকা জিতে নিয়েছেন কিন্তু মজার বিষয় হল সেই টাকার কোনো দাবি জানাননি তিনি! আর এরপরই শুরু হয়েছে সমস্যা।

জানা গেছে, টিকিটের বিজেতা ঘোষণা তো হয়ে গেছে কিন্তু এখনও পর্যন্ত কেউই তার দাবি জানাতে আসেনি। যার ফলে কার্যত বেশ সমস্যায় পড়েছেন দোকানের মালিক। কার হাতে তুলে দেবেন এই টাকা? এই নিয়েই পড়েছেন বিপাকে। সূত্রের খবর, গত রবিবার সন্ধ্যার দিকেই এই খেলা হয়েছিল। সেই সময় ৬৯৮৯৫ নম্বর টিকিটটি জিতে নিয়েছে ১ কোটি টাকা।

অথচ অবাক করা বিষয় এই যে, এই কাঙ্খিত টাকা দাবি করার জন্য কেউই এগিয়ে আসেননি। সংশ্লিষ্ট দোকানের মালিক কবির আনসারি এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘রবিবার রাতের খেলায় এক কোটি টাকার পুরস্কার জিতেছেন একজন। সেই টিকিট আমার দোকান থেকেই বিক্রি হয়েছিল। তবে কোন ব্যক্তি কোটি টাকা জিতেছেন তার খোঁজ এখনও পর্যন্ত পাইনি। ১২ ঘণ্টা হয়ে গিয়েছে। যিনি পেয়েছেন তিনি স্থানীয় কেউই হবে। তবে এখনও পর্যন্ত তাঁর কোনও খোঁজ পাচ্ছি না। তবে যাই হোক ভালোই লাগছে যে স্থানীয় কেউ এই টিকিট জিতেছেন।’

তবে তার দোকান থেকে কেউ এক কোটি টাকার পুরস্কার জেতায় ব্যাপক উচ্ছসিত কবির আনসারিও। এই খুশিতে নিজের দোকানকেও সাজিয়ে তুলেছেন তিনি। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘আসলে অনেকেই লটারি কাটেন অনেক আশা নিয়ে। তাই ভাগ্যবানই কেউ এই পুরস্কার জিতেছেন।’

এর সাথে তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘আগেও আমার দোকান থেকে অনেকেই লটারির টিকিট জিতেছেন। তবে এর আগে কেউ কোটি টাকা জেতেননি। ঠিক করেছিলাম যে একবার আমার দোকান থেকে কেউ প্রথম পুরস্কার হিসেবে কোটি টাকা জিতুক, সেদিনই আমি দোকান সাজাব। অবশেষে আমার দোকান থেকে টিকিট কেটে কেউ সেই পুরস্কার জিতেছেন। তাই দোকান সাজিয়েছি। তবে এখনও পর্যন্ত তিনি সেই টিকিটের দাবি জানাননি।’

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button