সরকারি কর্মীদের জন্য চরম খবর! আরও এক দফায় DA বাড়বে বাংলায়, এতটা বাড়বে বেতন

মহার্ঘ্য ভাতা (Dearness allowance) বা DA বাধ্যতামূলক নয়, এটি একটি ঐচ্ছিক বিষয়। কিছু মাস আগে এহেন মন্তব্য করে শোরগোল ফেলে দিয়েছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানের এহেন মন্তব্য যেন ডিএ ইস্যুতে আন্দোলন করা সরকারি কর্মীদের (Employee) রাগকে যেন আরো উস্কে দিয়েছিল।

যদিও বড়দিনের কিছু আগে ৪ শতাংশ, তারপর রাজ্য বাজেট চলাকালীন সরকারি কর্মীদের আরো ৪ শতাংশ ডিএ বৃদ্ধির ঘোষণা করে শিরোনামে উঠে আসেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। ফলে এখন সরকারি কর্মীদের ডিএ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ শতাংশে। কবে থেকে এই ডিএ কার্যকর হবে? এই প্রশ্নের উত্তরে গতকাল রবিবার বীরভূমের সিউড়িতে দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেন যে আগামী মে মাস থেকে সরকারি কর্মীদের ক্ষেত্রে এই নতুন ডিএ বা মহার্ঘ্য ভাতা কার্যকর হবে।

   

যদিও কেন্দ্রের সঙ্গে বাংলার সরকারী কর্মীদের ডিএ-র ফারাক এখনো অনেকটাই। আর এটাই হল রাজ্য সরকারি কর্মীদের অন্যতম রাগের কারণ। যদিও বাংলার সরকারি কর্মীদের এই ডিএ বাড়ার ফলে কত টাকা ব্যাঙ্কে ঢুকবে সকলের সে ব্যাপারে কিছু জানেন? যদি না জেনে থাকেন তাহলে আজকের এই প্রতিবেদনটি রইল শুধুমাত্র আপনাদের জন্য।

এক রিপোর্ট অনুযায়ী, বর্তমানে রাজ্য সরকারের গ্রুপ ডি কর্মীরা ন্যূনতম ১৭ হাজার টাকা বেসিক বেতন পেয়ে থাকেন। এই আবহে ১০ শতাংশ ডিএ সেই বেসিক পে-এর ওপর ধার্য করা হবে।
ডিএ বৃদ্ধির ফলে গ্রুপ ডি কর্মীদের মোট বেতন বাড়তে পারে ৭০০ টাকা থেকে ১৫০০ টাকা পর্যন্ত।

এর পাশাপাশি লোয়ার ডিভিশন ক্লার্কদের ক্ষেত্রে বেসিক পে ২৩ হাজার টাকার কাছাকাছি। এই আবহে তাঁদের ক্ষেত্রে মাস গেলে ৯২০ টাকা বাড়তি আসতে চলেছে নতুন বছরে। এছাড়া ব্লকে থাকা এক্সটেনশন অফিসারদের ক্ষেত্রে বেসিক পে ২৯ হাজার টাকা থেকে ৩২ হাজার টাকার মধ্যে ঘোরাফেরা করে। সেক্ষেত্রে তাঁদের ঘরে বাড়তি প্রায় ১২৮০ টাকা করে ঢুকতে পারে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর