বড় খবর, লক্ষ্মীর ভান্ডার নিয়ে নয়া সিদ্ধান্তের পথে পশ্চিমবঙ্গ সরকার! প্রভাবিত হবেন মহিলারা

চলতি বছর লোকসভা ভোট হবে। ভোটের কথা মাথায় রেখে সব দল সেজে উঠছে রণ সজ্জায়। ভোটের প্রাক্কালে জনমুখী বিভিন্ন প্রকল্পের কথা ঘোষণা করে থাকে সরকার (Government)। কেন্দ্র, রাজ্য উভয় সরকার কিছু না কিছু চমক দিয়ে থাকে। বাজেট পেশ করে ইতিমধ্যে বেশ কিছু চমক দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার (Central Government)। যার ফলে বাংলায় (West Bengal) কিছু প্রভাব পড়বে বলে মনে করছেন কেউ কেউ। কেন্দ্রের ঘোষণা করা লাখপতি দিদি প্রকল্প ইতিমধ্যে অনেকের নজর কেড়েছে। এই প্রকল্পের প্রেক্ষিতে বড় পদক্ষেপ নিতে পারে পশ্চিমবঙ্গ সরকার (Government Of West Bengal)।

২০২১ সালের অগস্টে লক্ষ্মীর ভান্ডার (Lakshmir Bhandar) প্রকল্প চালু করেছিল পশ্চিমবঙ্গ সরকার। পরিবারের মহিলারা সরকার থেকে অনুদান পান। লক্ষ্মী ভান্ডার সাধারণ বিভাগের জন্য প্রতি মাসে ৫০০ টাকা এবং এসসি ও এসটি বিভাগের জন্য প্রতি মাসে ১০০০ টাকা করে দেওয়া হয়। মহিলাদের আর্থিক সহায়তা দেওয়ার জন্য রাজ্য সরকার চালু করা লক্ষ্মী ভান্ডার প্রকল্পটি স্কচ পুরষ্কার পেয়েছে ইতিমধ্যে। মহিলা ও শিশু কল্যাণ বিভাগ এই প্ল্যাটিনাম পুরস্কার পেয়েছে।

   

কোভিড চলাকালীন প্রতি মাসে মহিলাদের নগদ দেওয়ার জন্য এই প্রকল্প শুরু করা হয়েছিল। এর অধীনে, তফসিলি জাতি / উপজাতি মহিলাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে প্রতি মাসে ১০০০ টাকা এবং সাধারণ বর্ণের মহিলাদের প্রতি মাসে ৫০০ টাকা দেওয়া হয়। কেন্দ্রের ঘোষণা মতো লাখপতি দিদি প্রকল্পের জবাব দিতে পারে রাজ্যের লক্ষ্মী ভান্ডার প্রকল্প।

রাজনৈতিক চর্চাকারীদের একাংশের ধারণা, লাখপতি দিদি প্রকল্পের জবাব দিতে পারে রাজ্যের লক্ষ্মী ভান্ডার প্রকল্প। সাধারণ মানুষের মন জয় করার জন্য রাজ্য সরকার তাদের এই জনপ্রিয় প্রকল্পের জন্য বরাদ্দ অর্থের পরিমাণ আরো বাড়িয়ে দিতে পারে বলে কেউ কেউ অনুমান করছেন। তবে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এখনও কিছু জানানো হয়নি।

lakhir bhandar mamata w

কেন্দ্র সরকার লাখপতি দিদি প্রকল্পের মাধ্যমে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সঙ্গে যুক্ত মহিলাদের অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী করার উদ্যোগ নিয়েছে। এর অধীনে, সরকার যোগ্য মহিলাদের স্ব-কর্মসংস্থান শুরু করার জন্য সহজে ১-৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আর্থিক সহায়তা প্রদান করার কথা জানিয়েছে। সরকারের লক্ষ্য এই প্রকল্পের মাধ্যমে মহিলাদের কর্মসংস্থানের সাথে সংযুক্ত করা, তাদের জীবনযাত্রার মান উন্নত করা, আয় বাড়ানো, তাদের স্বনির্ভর এবং ক্ষমতায়িত করা। অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়া মহিলাদের এগিয়ে আনতে সরকার লাখপতি দিদি প্রকল্প চালু করছে।

সম্পর্কিত খবর