সাত সকালেই লটারি লাগল সরকারি কর্মীদের, ফের DA বৃদ্ধির ঘোষণা রাজ্যের! এতটা বাড়ল বেতন

লোকসভা ভোটের আগেই এবার কার্যত কপাল খুলে গেল রাজ্য সরকারি কর্মীদের (Employee)। লোকসভা ভোটের চূড়ান্ত দিনক্ষণ এখনও অবধি ঘোষণা করা হয়নি। এই তারিখ যে কোনও সময়ে ঘোষণা হয়ে যেতে পারে বলে খবর। এরই মাঝে রাজ্য সরকারি কর্মীদের আরও ৪ শতাংশ ডিএ (Dearness allowance) বা মহার্ঘ্য ভাতা বাড়ল। হ্যাঁ এমনই ঘোষণা করে সকলকে চমকে দিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী।

এদিকে সরকারের এহেন সিদ্ধান্তের কারণে বেজায় খুশি কর্মীরা। এমনিতেই আর কয়েকদিনের মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকার নিজেদের কর্মীদের আরও ৪ শতাংশ DA বাড়ানোর ঘোষণা করবে বলে কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে। কেন্দ্র যদি এই ৪ শতাংশ ডিএ বাড়ায় তাহলে সরকারি কর্মীদের মহার্ঘ্য ভাতার পরিমাণ এক ধাক্কায় ৫০ শতাংশ অবধি পৌঁছে যাবে। তবে কেন্দ্রের আগেই রাজ্য সরকার কর্মীদের ডিএ বাড়িয়ে দেওয়ার ফলে খুশির হাওয়া বইছে সকলের মধ্যে।

   

গুজরাট সরকার রাজ্যের কর্মচারীদের সুবিধার্থে একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ২০২৩ সালের জুলাই থেকে মহার্ঘ ভাতা চার শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। এর ফলে উপকৃত হবেন প্রায় ৪.৪৫ লক্ষ কর্মচারী এবং ৪.৬৩ লক্ষ পেনশনভোগী। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ভুপেন্দ্র প্যাটেল জানিয়েছেন, বর্ধিত ভাতা বেতনের সঙ্গে তিন কিস্তিতে দেওয়া হবে। এনপিএস কর্মীদের ১০ শতাংশ এবং রাজ্য সরকার ১৪ শতাংশ অবদান রাখবে। মোট ৪.৪৫ লক্ষ কর্মচারী এবং প্রায় ৪.৬৩ লক্ষ অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারী অর্থাৎ রাজ্য সরকারের পেনশনভোগী, পঞ্চায়েত পরিষেবা এবং অন্যান্যরা এই মহার্ঘ ভাতা বৃদ্ধির সুবিধা পাবেন।

১ জুলাই ২০২৩ থেকে ফেব্রুয়ারি ২০২৪ পর্যন্ত মহার্ঘ ভাতার পার্থক্য পরিমাণ তিন কিস্তিতে পরিশোধ করা হবে। কর্মচারীদের জুলাই-২০২৩ থেকে সেপ্টেম্বর-২০২৩ পর্যন্ত পার্থক্যের অর্থ মার্চ-২০২৪ এর বেতন, অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর ২০২৩ পর্যন্ত বকেয়া এবং এপ্রিল-২০২৪ এর বেতন এবং জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি-২০২৪ এর বকেয়া মহার্ঘ ভাতা সহ মে-২০২৪ এর বেতন পরিশোধ করা হবে।

da money

কর্মচারীদের দাবির কথা বিবেচনা করে সরকার একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। রাজ্যের নতুন বর্ধিত পেনশন প্রকল্প এনপিএসে কর্মচারী এবং রাজ্য সরকারের অবদান সম্পর্কেও একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর পরিবর্তে কর্মচারীকে ১০ শতাংশ এবং রাজ্য সরকারকে ১৪ শতাংশ অবদান রাখতে হবে। এলটিসি নিয়েও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। এতদিন এলটিসি হিসাব করা হত ষষ্ঠ বেতন কমিশনের বেতন স্কেল অনুযায়ী, যা এখন সপ্তম বেতন কমিশন অনুযায়ী হবে এবং সেই অনুযায়ী সরকার বেতন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর