বড় ঘোষণা! ফের ৪ শতাংশ বাড়ল DA, সাতসকালে বিরাট সুখবর সরকারি কর্মীদের জন্য

DA বা মহার্ঘ্য ভাতার  (Dearness allowance) অপেক্ষায় চাতক পাখির মতন বসে থাকেন কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারী (Employee) থেকে শুরু করে বহু রাজ্যের সরকারি কর্মীরা। এদিকে গত বছর ২০২৩ সাল থেকে কেন্দ্রীয় সরকারের থেকে শুরু করে বহু রাজ্য সরকার নিজেদের কর্মীদের কথা ভেবে DA বাড়িয়েছে তবে এবার নতুন বছর শুরু হতেই আরো একবার ডিএ বাড়লো সরকারি কর্মীদের।

এদিকে এহেন মহার্ঘ্য ভাতা বৃদ্ধি নিয়ে বেজায় খুশি সকলে। এক ধাক্কায় ৪২ শতাংশ থেকে ৪৬ শতাংশ অবধি ডিএ বাড়ালো সরকার। রাজ্য সরকারের এরকম সিদ্ধান্তের কারণে বহু সরকারি কর্মচারী থেকে শুরু করে পেনশন প্রাপকরা উপকৃত হবেন। সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, জানুয়ারি থেকেই বর্ধিত হারে ডিএ-র টাকা পাবেন সরকারি কর্মচারীরা।  এই মর্মে, ইতিমধ্যেই রাজ্য অর্থ দপ্তরের তরফে বিজ্ঞপ্তি অব্দি জারি করে দেওয়া হয়েছে।

   

আসলে উত্তরাখণ্ড সরকার একটি বড় ঘোষণা করেছে। উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী পুষ্কর সিং ধামি রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা বাড়ানোর কথা ঘোষণা করেছেন। এর ফলে কর্মচারীদের ডিএ ৪২ শতাংশ থেকে বেড়ে হয়েছে ৪৬ শতাংশ।

বর্ধিত মহার্ঘ ভাতা প্রদান ১ জুলাই, ২০২৩ থেকে কার্যকর হবে এবং সুবিধাভোগীদের পাওনা নগদে প্রদান করা হবে। অর্থ দফতরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২০২৪ সালের ১ জানুয়ারি থেকে কর্মচারীদের প্রতি মাসে বেতনের পাশাপাশি সংশোধিত মহার্ঘ ভাতা দেওয়া হবে। রাজ্য সরকারি কর্মচারী এবং সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত শিক্ষা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নিয়মিত ও পূর্ণকালীন কর্মচারীদের ক্ষেত্রে এই নিয়ম প্রযোজ্য হবে।

money

অক্টোবরে কেন্দ্রীয় সরকারও ডিএ বাড়িয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০২৩ সালের ১৮ অক্টোবর কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারী ও পেনশনভোগীদের ডিএ ৪ শতাংশ বাড়ানোর কথা ঘোষণা করেছিল। এই সিদ্ধান্তের ফলে প্রায় ৪৮.৬৭ লক্ষ কর্মচারী এবং ৬৭.৯৫ লক্ষ পেনশনভোগী উপকৃত হবেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই প্রস্তাবটি অনুমোদিত হয়।

এখন সরকারি কর্মচারীদের ডিএ এবং পেনশনভোগীদের ডিআর বেড়ে হয়েছে ৪৬ শতাংশ। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর মন্ত্রিসভার এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে বলেছিলেন যে বর্ধিত ভাতা ২০২৩ সালের ১ জুলাই থেকে প্রযোজ্য হবে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর