এবার ইন্দোনেশিয়াতেও চলবে ভারতীয় রুপি! বড় চুক্তি RBI-র

ফের একবার নজির গড়ল ভারত (India)। এবার ভারত যা করে দেখিয়েছে সে ব্যাপারে শুনলে আপনিও ভারতবাসী হিসেবে গর্ববোধ করবেন। আসলে বছরের পর বছর ধরে ভারত প্রতিনিয়ত বিশ্বের অনেক দেশের সঙ্গে রুপির (Indian Rupee) বাণিজ্যকে (Business) উৎসাহিত করছে। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের সময় রাশিয়া থেকে তেল কেনার ক্ষেত্রে ভারত রুপিতে ব্যবসা করেছিল এবং ছাড়ে অপরিশোধিত তেলও কিনেছিল।

এখন ইন্দোনেশিয়াতেও (Indonesia) ভারতের এই রুপি চলবে। মুদ্রা বিনিময় বা ডলারের ব্যবস্থা ছাড়াই ইন্দোনেশিয়ার সঙ্গে বাণিজ্য করতে পারবে নাগরিকরা বলে খবর। এ জন্য ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক আরবিআই (Reserve Bank of India) ও ব্যাংক ইন্দোনেশিয়ার মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার RBI এবং ব্যাংক ইন্দোনেশিয়া (BI) একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে। দুই দেশ এখন দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যে স্থানীয় মুদ্রার ব্যবহার প্রচার করবে। এর মধ্যে রয়েছে ভারতীয় রুপি এবং ইন্দোনেশিয়ান রুপি উভয়ই।

   

আরবিআই এক বিবৃতি জারি করে জানিয়েছে যে দুই দেশের মধ্যে সীমান্ত লেনদেনের জন্য একটি ব্যবস্থা স্থাপন করা হবে। ভারতীয় রুপি ও ইন্দোনেশিয়ান রুপিতে (আইডিআর) লেনদেনের জন্য দুই দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ ব্যবস্থা তৈরি হলে দুই দেশের রফতানিকারক ও আমদানিকারকরা অনেক লাভবান হবেন। তারা কেবল তাদের দেশীয় মুদ্রায় বিল এবং অর্থ প্রদান করতে সক্ষম হবে।

এই ব্যবস্থার আরেকটি সুবিধা হ’ল ইন্দোনেশিয়ান রুপি এবং ভারতীয় রুপির মধ্যে একটি বৈদেশিক মুদ্রার বাজারের বিকাশ। একই সঙ্গে বৈদেশিক মুদ্রা হিসেবে ভারতীয় রুপির চাহিদা ও বিশ্বাসযোগ্যতা বাড়বে। আরবিআইয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ডলার ছাড়া অন্যান্য দেশীয় মুদ্রায় লেনদেন হলে এর খরচ কমবে। এছাড়া লেনদেন নিষ্পত্তি করতেও সময় কম লাগবে। আরবিআই গভর্নর শক্তিকান্ত দাস এবং ব্যাংক ইন্দোনেশিয়ার গভর্নর পেরি ওয়ারজিও সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন। এই অংশীদারিত্ব RBI এবং বিআইয়ের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতাকে আরও জোরদার করবে।

rbi

দ্বিপাক্ষিক লেনদেনে স্থানীয় মুদ্রার ব্যবহার শেষ পর্যন্ত ভারত ও ইন্দোনেশিয়ার মধ্যে বাণিজ্য বাড়ানোর পাশাপাশি আর্থিক সংহতকরণ এবং প্রাচীনকাল থেকে ঐতিহাসিক, সাংস্কৃতিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক জোরদার করতে অবদান রাখবে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর