চরম খবর, ভোটের আগে ফের ৪ শতাংশ DA-র ঘোষণা খোদ মুখ্যমন্ত্রীর! লাফাচ্ছে সরকারি কর্মীরা

বকেয়া এবং কেন্দ্রীয় হারে ডিএ-র (Dearness allowance) দাবিতে বিক্ষোভ যেন থামারই নাম নিচ্ছে না বাংলায় (West Bengal)। বিগত কয়েকশো দিন ধরে দফায় দফায় বিক্ষোভ দেখিয়েই চলেছেন রাজ্যের হাজার হাজার সরকারি কর্মী (Employee)। এদিকে বড়দিনের আগে তারপর রাজ্য বাজেট পেশ করার সময় ৪ শতাংশ DA বৃদ্ধির ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। তারপরেও যেন চিড়ে ভেজেনি। তবে এরই মাঝে এই ডিএ সংক্রান্ত আরও বড় খবর প্রকাশ্যে এল।

আপনিও কি রাজ্য সরকারের অধীনে চাকরি করেন? তাহলে আপনার জন্যেও রইল একটি বিরাট খবর। লোকসভা ভোটের আগে রাজ্যের সরকারি কর্মচারীদের কথা ভাবনাচিন্তা করে এবার আরও এক ধাক্কায় ৪ শতাংশ ডিএ বৃদ্ধির ঘোষণা করলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। নিজেই টুইট করে সে কথা জানালেন সকলকে। এদিকে স্বাভাবিকভাবেই রাজ্য সরকারের এহেন সিদ্ধান্তে বেজায় খুশি সরকারি কর্মীরা।

   

আসলে কর্মচারী ও পেনশনভোগীদের বড় উপহার দিয়েছে হিমাচল প্রদেশের সরকার। সুখবিন্দর সিং সুখু সরকার চার শতাংশ মহার্ঘ ভাতা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে। ২০২২ সালের জুলাই মাস থেকে বর্ধিত মহার্ঘ ভাতা বকেয়া দেওয়া হবে। মে মাসে পাওয়া এপ্রিল মাসের বেতনে নগদ অর্থ পাওয়া যাবে। দ্বিতীয় বাজেট পেশের সময় সুখু সরকার পর্যায়ক্রমে ২ লক্ষ কর্মচারীকে নতুন বেতন স্কেল দেওয়ার এবং প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ কর্মচারী ও পেনশনভোগীদের চার শতাংশ মহার্ঘ ভাতা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিল।

হিমাচল প্রদেশ সরকার প্রায় পাঁচ লক্ষ সরকারি কর্মচারী এবং পেনশনভোগীদের একটি বড় উপহার দিয়েছে। সোমবার সুখু সরকার কর্মচারী ও পেনশনভোগীদের ষষ্ঠ বেতন কমিশনের বকেয়া মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। কর্মচারী এবং পেনশনভোগীদের আগামী আর্থিক বছরে মোট বকেয়ার ৪.৫ শতাংশ প্রদান করা হবে। এটি ২০১৬ সালের ১ জানুয়ারি থেকে দেওয়া হবে। এর মধ্যে মার্চ মাসে ১.৫০ শতাংশ পরিশোধ করা হবে। এরপর প্রতি মাসে বকেয়ার ০.২৫ শতাংশের বেশি পরিশোধ করা যাবে না।

da money

বেতন ও পেনশনের সঙ্গে প্রতি মাসে বকেয়া মেটানো হবে। এর সঙ্গে কর্মীদের বকেয়ার ২৪ দশমিক ৫ শতাংশ পরিশোধ করা হবে। ইতিমধ্যেই ২০ শতাংশ দেওয়া হয়েছে। পেনশনভোগীদের বকেয়া পাঁচ হাজার টাকার কম হলে তা একসঙ্গে দেওয়া হবে। একই সঙ্গে ২০২৪-২৫ অর্থবছরে নিয়মিত কর্মচারী ও পেনশনভোগীদের প্রতি মাসের বেতনে দেড় শতাংশ মহার্ঘ ভাতাও দেওয়া হবে। বেতনক্রম ও মহার্ঘ ভাতা বাবদ বকেয়ার পরিমাণ যাতে নির্ধারিত সীমা অতিক্রম না করে, তা নিশ্চিত করা হবে।

সরকার পেনশনভোগীদের জন্য চার শতাংশ মহার্ঘ ভাতাও ঘোষণা করেছে। এটি ১ জুলাই, ২০২২ থেকে সরকারী পেনশনভোগী এবং পারিবারিক পেনশনভোগীদের জন্য প্রদানযোগ্য। ২০২৪ সালের ১ এপ্রিল থেকে দেওয়া হবে। ভাতা ৩৪ থেকে বাড়িয়ে ৩৮ শতাংশ করা হয়েছে। মে মাসে প্রদত্ত এপ্রিলের বেতনে অতিরিক্ত মহার্ঘ ভাতা দেওয়া হবে। গত ২ মার্চ কর্মচারী ও পেনশনভোগীদের জন্য চার শতাংশ মূল্যস্ফীতি ভাতা প্রকাশ করে সরকার। ২০২২ সালের জুলাই মাস থেকে বর্ধিত মহার্ঘ ভাতা বকেয়া দেওয়া হবে। মে মাসে পাওয়া এপ্রিল মাসের বেতনে নগদ অর্থ পাওয়া যাবে। এখন বকেয়া বেতনও ঘোষণা করা হয়েছে।  ১ জুলাই, ২০২২ থেকে ৩১ মার্চ, ২০২৪ পর্যন্ত বকেয়া দেওয়ার পদ্ধতি আলাদাভাবে দেওয়া হবে। সোমবার অর্থসচিবের মুখ্য সচিব তার বিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন। কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা প্রদানের জন্য ইতিমধ্যে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর