গরুর দুধ, গোবর দিয়েই কোটি কোটি টাকার ব্যবসা! এই কৃষকের গো-সেবার কাহিনী অনুপ্রেরণা জোগাবে

মনে যদি সাহস আর আত্মবিশ্বাস থাকে তাহলে মানুষ বিশ্বজয় অবধি করে নিতে পারে। অতীতে এমন হাজার হাজার উদাহরণ রয়েছে বৈকি। জীবনে সাফল্য পেতে কে না চায়। নিজের বাড়ি, গাড়ি হোক, টাকা পয়সার অভাব যাতে না হোক, সর্বোপরি সুস্থ জীবন কে না পেতে চায়। হ্যাঁ ঠিক তেমনই স্বপ্ন ছিল মহারাষ্ট্রের (Maharashtra) এক কৃষকের (Farmer) ছেলের। মহারাষ্ট্রের এক কৃষক সকল অসম্ভবকে সম্ভব করে তুলেছেন। সোলাপুর জেলার এই কৃষক প্রমাণ করেছেন যে কোনও কাজই ছোট বা বড় নয়। কঠোর পরিশ্রম এবং ধৈর্যের সাথে, যে কোনও ব্যক্তি কোটিপতি হতে পারে। প্রকাশ ইমডের সাফল্যের কাহিনী আপনাকে উৎসাহ দেবেই দেবে।

আপনি জানলে অবাক হবেন, এই কৃষক গরুর দুধ ও গোবর (Cow Dung) বিক্রি করে ১ কোটি টাকার একটি বাংলো তৈরি করে ফেলেছেন। হ্যাঁ এটাই সত্যি। আর তাঁর সাফল্য দেখে অনেকেরই চোখ রীতিমতো কপালে উঠে গিয়েছে। প্রকাশ ইমডে ১৯৮৮ সাল থেকে দুধ বিক্রির ব্যবসা (Business) শুরু করেন। সেই সময় তাঁর একটিই মাত্র গরু ছিল। তিনি গরুর সেবা করতেন এবং গ্রামে গ্রামে দুধ বিক্রি করতেন। তিনি এক সময়ে ৪ একর জমির মালিক ছিলেন। জলের অভাবে তারা এই জমিতে চাষাবাদ করতে পারেনি। এ জন্য তিনি গরু পালন ও গরুর দুধ বিক্রির ব্যবসা শুরু করেন।

   

maharashtra farmer builds 1 crore bungalow by selling milk cow dung2 649937dd1856f

বর্তমানে প্রকাশ ইমডের খামারে প্রায় ১৫০টি গরু রয়েছে এবং সেখান থেকে ১,০০০ লিটার দুধ উৎপাদিত হয়। গোটা ইমডে পরিবার তাদের খামারে জন্ম নেওয়া কোনও বাছুর বা পুরানো গরুকে বিক্রি করেন না। পুরো পরিবার একসাথে গরুর সেবা করে। পুরো পরিবার গরুর দুধ খাওয়ানো, গোশালা পরিষ্কার করা ইত্যাদিতে সহায়তা করে।

এই কাজ করেই প্রকাশ ইমডে এখন ১ কোটি টাকার একটি বাংলো তৈরি করেছেন। নিজের বাংলোর নাম দিয়েছেন ‘গোধন নিবাস’। স্থানীয় বাসিন্দারা আদর করে ইমডেকে ‘বাপু’ বলে ডাকে। বাংলোর ছাদে গরু ও দুধের ক্যানের একটি মূর্তি স্থাপন করা হয়েছে। এক রিপোর্ট অনুযায়ী, প্রকাশ তার দিন শুরু করেন গো মাতার পুজোর মাধ্যমে। ১৫০টি গরুর জন্য প্রতিদিন ৪-৫ টন গবাদি পশুর খাবারের প্রয়োজন হয়। খামারে যতটা সম্ভব পশুখাদ্য চাষ করা হয় এবং বাকিটা কেনা হয়। আগে যে সব গরু ২৫ লিটার দুধ দিত, তারা এখন ৪০ লিটার পর্যন্ত দুধ দেয়।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর