স্নান করেন না, এই নোংরা স্বভাবের জন্যই বিচ্ছেদ হয় কিরণের সঙ্গে! ফাঁস আমির খানের কেচ্ছা

বিখ্যাত সুপারস্টার তিনি। কোনো এক কারণে ভারতের (India) থেকে চিনে (China) তার ছবি বেশি ভালো চলে। শেষ যে দুটি ছবি বক্স অফিসে এসেছে সেদুটিই ইন্ডাস্ট্রিতে সুপার ফ্লপ। কিন্তু তাই বলে জনপ্রিয়তা মোটেই কমেনি। ‘লাল সিং চাড্ডা’ বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ার পর দেশ ছাড়েন আমির খান (Aamir Khan) । মার্কিন মুলুকে গিয়ে বিশ্রাম নেন তিনি। কোনো এক কারণে আমিরের প্রাক্তন স্ত্রীদের বিচ্ছেদের পরেও তার সাথেই থাকতে দেখা গিয়েছে, বিশেষত কিরণ রাওকে (Kiran Rao)।

এদিকে আমির তার দ্বিতীয় স্ত্রী কিরণের সাথে বিচ্ছেদ ঘোষণা করেন গত বছর। দু’জনে দীর্ঘদিন আলোচনার পর যৌথ সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। কিন্তু কেন তাদের বিচ্ছেদ হয় সেটা প্রত্যক্ষ আনেননি তারা। তবে নেট মাধ্যমে এই বিষয়ে গুঞ্জন যে, আমিরের এক নোংরা স্বভাবের কারণে নাকি দারুণ বিরক্ত হতেন কিরণ, আর সেখান থেকেই বিচ্ছেদ।

তবে এই স্বভাবটা আজকের নয়। কোন ২০১১ সালে ‘ধোবি ঘাট’ ছবির প্রচারের সময় আমিরের এই নোংরা স্বভাবের কথা প্রথম সামনে আসে। মিস্টার পারফেকশনিস্ট খান নাকি রোজ রোজ স্নান করতে পারেন না! আর তাছাড়া বাড়িতে বসে থাকলে এবং বাইরে না বেরোলে পারতপক্ষে স্নান তিনি করেনই না।

আসলে সেই সময় এক সংবাদ মাধ্যমে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় আমির এবং কিরণ একে অপরের খারাপ দিকগুলো তুলে ধরেন। সেখানেই এই গুঢ় রহস্য ফাঁস হয়। প্রাক্তন স্ত্রী কিরণ রাও বলেন, আমির নাকি স্নানই করতে চান না। নিয়মিত স্নান করেনও না তিনি! আর এর পরিপ্রেক্ষিতে আমির যা জানিয়েছেন তাতে অবাক জনতা।

আত্মপক্ষ সমর্থন করে অভিনেতাও মুখ খুলেন, জানান এটা মোটেও সত্যিই নয়। তিনি কাজের জন্য যখনই বেরোতেন তখনই নাকি আগে স্নান করেন তারপরে বের হন। আর যেহেতু বেশিরভাগ সময়ই তিনি বাইরে যান তাই তিনি স্নান করেই বের হন। তবে এটা তিনি স্বীকার করেন যে, আমির বাড়িতে থাকলে ওকাজ মোটেই করেননা!

aamir kiran

কিরণ রাও আমিরের এই স্বভাব একটুও পছন্দ করতেন না। কিন্তু কিরণ এও জানান যে, আমিরকে নিজের জীবনে পেয়ে খুব খুশি তিনি। আমির এখন স্বামীর থেকেও তার বন্ধু বেশী হয়ে ওঠেন, তাই তাদের মধ্যে কোনোদিনই ইগোর সমস্যা হয়নি। তবে শেষ পর্যন্ত ১৬ বছর পর বিচ্ছেদ হয়ে যায় তাদের।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button