Jio শুধু ভারতেই হিরো, Airtel পরিষেবা দেয় বিশ্বের এই ১৮টি দেশে! গ্রাহক সংখ্যা চমকে দেওয়ার মতন

সারা বিশ্বে স্মার্টফোনের (Smartphone) জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাওয়ায় বেড়েছে ইন্টারনেট (Internet) ব্যবহার। ভারতে (India) বহু সময় ধরে এক নাম্বার পজিশনে থাকা এয়ারটেল (Bharti Airtel) ভারতীয় বাজারে এখন কিছুটা নীচের দিকে থাকলেও এক সময় ভারত জুড়ে বিখ্যাত হয়েছিল সংস্থাটি। কিন্তু জানেন কী ভারত ছাড়াও আরো কয়েকটি দেশে নিজেদের পরিষেবা প্রদান করে সংস্থাটি। আজ সেই তথ্যই জানাতে চলেছি আপনাদের।

ভারতে তো বটেই, তারই সাথে বিশ্বের আরো ১৬ টি দেশে নিজেদের পরিষেবা দেয় তারা। দক্ষিণ এশিয়া ও আফ্রিকার একাধিক দেশে ব্যবসা রয়েছে সুনীল মিত্তলের সংস্থার। ২০১০ সালে আফ্রিকাতে নিজেদের পরিষেবা শুরু করে Airtel। তারপর থেকে একের পর এক মার্কেটে নিজেদের আধিপত্য বিস্তার করেছে তারা। বিগত এক দশকের মধ্যে আফ্রিকার চাদ, কঙ্গো গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র, কঙ্গো প্রজাতন্ত্র, গ্যাবন, কেনিয়া, মাদাগাস্কার, মালাউই, নাইজের, নাইজেরিয়া, রোয়ান্ডা, সেশেলস, তানজানিয়া, উগান্ডা এবং জাম্বিয়ায় নেটওয়ার্ক বিস্তার করেছে ভারতীয় কোম্পানিটি

আফ্রিকাতে নিজেদের নেটওয়ার্ক বিস্তার করার জন্য ২০১০ সালে Zian গ্রুপ অধিগ্রহণ করে প্রবেশ করে Airtel। ভারতের বাইরে এটাই ছিল কোনও ভারতীয় কোম্পানির দ্বিতীয় বৃহত্তম অধিগ্রহণ। সেই অধিগ্রহণ সম্পন্ন হতেই আফ্রিকাতে নিজেদের একের পর এক দেশে নেটওয়ার্ক বিস্তার শুরু করে Airtel কোম্পানি।

আফ্রিকাতে যেমন আজ Airtel এর নাম ছড়িয়ে পড়েছে। ঠিক তেমনই দক্ষিণ এশিয়াতেও ব্যাবসা সম্প্রসারণ করেছে সংস্থাটি। শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশে এখন দারুণ বাজার রয়েছে Airtel-এর। বর্তমানে সারা বিশ্বে ৪৭ কোটি গ্রাহক রয়েছে Airtel এর। ভারতেই সেই সংখ্যা ৩২.১ কোটি। প্রসঙ্গত দক্ষিণ এশিয়া ও আফ্রিকা ছাড়াও দ্বীপ রাষ্ট্র চ্যানেল আইল্যান্ডে Airtel-এর নেটওয়ার্ক রয়েছে।

airtel

ভারতের পড়শি দেশ বাংলাদেশেও বিরাট নেটওয়ার্ক বাজার রয়েছে Airtel-এর। বাংলাদেশের রবি নেটওয়ার্কের সাথে হাত মিলিয়ে নিজেদের পরিষেবা দেয় Airtel। জানিয়ে রাখি যে, আফ্রিকান দেশ চাদের বৃহত্তম টেলিকম কোম্পানির Airtel। এছাড়াও বাকি পুরো আফ্রিকাতে টেলিকম বাজারে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে Airtel।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button