ঐন্দ্রিলা সংক্রান্ত সব্যসাচীর সব পোস্ট ডিলিটের মাঝে DP কালো করলেন অভিনেত্রীর সতীর্থ! জানা গেল কারণ

আচমকাই সব্যসাচী চৌধুরীর ফেসবুক ওয়াল থেকে উধাও হয়ে গেল সমস্ত পোস্ট! রিসেন্ট কোনো পোস্ট নেই তার ওয়ালে! এমনকি কয়েকদিন আগে ঐন্দ্রিলার ব্রেন স্ট্রোক হওয়ার পর থেকে তিনি যা যা লিখেছিলেন তার সমস্ত পোস্টই ডিলিট হয়ে গেছে। তাহলে কি খারাপ কিছু ঘটেছে? কি ঘটল হঠাৎ?

শনিবার দিন থেকে চিকিৎসায় সাড়া দেন অভিনেত্রী। কিন্তু সন্ধ্যের দিকে আবারো কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয় তার। তৎক্ষনাৎ CPR দেওয়া হয় ঐন্দ্রিলাকে। এই নিয়ে দু দুবার হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন অভিনেত্রী। এখনো ২৪ ঘণ্টা ডাক্তারদের তদারকির মধ্যে ভেন্টিলেশনে রয়েছেন ঐন্দ্রিলা।

এর আগে ম্যাসিভ অ্যাটাক হলেও এবার মাইল্ড অ্যাটাক হয়েছে তার। ঐন্দ্রিলার স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য জানা যেত সব্যসাচীর কাছ থেকে। তিনিই জানান যে, হার্টরেট, রক্তচাপ আবারো স্বাভাবিক মাত্রায় এসেছে। তার শেষপোস্টে তিনি লিখেন, ‘ঐন্দ্রিলা আছে। ঐন্দ্রিলা থাকবে।’ এতে করে বিরাট শান্তি পায় অভিনেত্রীর অনুরাগীরা।

82963913

কিন্তু সেই সুখের খবর বেশিক্ষণ টেকার নয়, হাসপাতাল সূত্রে জানা গেল যে, ঐন্দ্রিলার শারীরিক অবস্থা আবারো কিছুটা খারাপ হয়েছে। তার মধ্যেই সব্যসাচীর পোস্ট মুছে দেওয়ার ফলে হার্টবিট বেড়ে গিয়েছে সাধারণ মানুষের। তার হঠাৎ এই পদক্ষেপে ভীত সন্ত্রস্ত হয়েছেন সাধারন মানুষ। ৩১শে অক্টোবরের পরের সমস্ত পোস্ট উধাও হওয়াও অবাক হয়েছেন সবাই।

আবার সব্যসাচী এই কাজ করার কিছুক্ষণ পর ভক্তরা দেখেন যে, ঐন্দ্রিলার সতীর্থ জিতু কামাল তার সোশ্যাল মিডিয়া DP কালো করে দিয়েছে। খারাপ কিছু শোনার আশঙ্কায় হার্টবিট বেড়ে যায় সবার। কিন্তু জিতু পরে জানান যে, “ঐন্দ্রিলার সঙ্গে এর কোনও সম্পর্ক নেই। আমার এই DP -টা অনেক পুরনো। আগেরটা সেভেন বা ফিফটিন ডেইজ অটোমেটিক করা ছিল। তাই আগেরটা চলে এসেছে।” জিতু কামালের ক্ষেত্রে উত্তর পাওয়া গেলেও, সব্যসাচী চৌধুরী কেনো এই কাজ করেছেন সেটা ভাবাচ্ছে সবাইকে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button