পড়তে হবে না এজেন্টদের পাল্লায়, IRCTC-তে শুধু বাছুন এই অপশন, মিলবে কনফার্ম তৎকাল টিকিট

অক্টোবর মাসের পুরোটাই উৎসবের। শুরুতেই ছিল দুর্গাপূজা। এবার একই মাসে রয়েছে দীপাবলি। তাই সব মিলিয়ে উৎসবের মরশুমে কাজ থেকে বাড়ি ফেরের তাগাদা রয়েছে বেশ। কিন্তু বাড়ি ফিরবো বললেই কি ফেরা যায় নাকি! ট্রেনের কনফার্ম টিকিট পাওয়া কোনো চাট্টিখানি ব্যাপার না। কিন্তু এবার এইভাবে আপনি বুক করে নিতে পারেন নিজের টিকিট।

বাড়ি ফেরার আকাঙ্ক্ষা থাকলেও ভিড়ের ঠেলায় টিকিট পাওয়া খুব মুশকিল। আবার সেই সাথে ওয়েটিং টিকিট নিশ্চিত হওয়ার সম্ভাবনাও খুব কম। কিন্তু এক্ষেত্রে তৎকাল টিকিট আপনাকে বেশ সাহায্য করতে পারে। কিন্তু সেখানেও রেহাই কোথায়, বেশি টাকা দেওয়ার পরই যে টিকিট মিলবে এমন কোনো নিশ্চয়তা নেই। আর এইজন্য অনেকেই এজেন্টদের কাছে হাজির হন। কিন্তু আর প্রয়োজন হবেনা তার।

IRCTC এবার রেলের টিকিট বুকিং এর পদ্ধতিতে বিরাট পরিবর্তন নিয়ে আসতে চলেছে। রেলের এই সিদ্ধান্তে দেশের লাখো মানুষ বহুল উপকৃত হবেন। এবার থেকে আপনিও রেলের এই সিদ্ধান্তের ফায়দা নিতে পারবেন।

রেলের টিকিট বুকিং এর সময় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন। সকাল ১০টা থেকে AC কোচের ততকাল টিকিট কাটা শুরু হয়, আর স্লিপার ক্লাসের ক্ষেত্রে সেই সুবিধা মেলে বেলা ১১ টা থেকে। তাই আপনিও যদি সঠিক সময়ে টিকিট বুক করতে পারেন তাহলে আপনিও টিকিট পেতে পারেন। তবে এজন্য যততাড়াতাড়ি হাত চালাতে পারবেন বুকিং করতে পারবেন ততই টিকিট পাওয়ার চান্স বেড়ে যাবে আপনার।

তবে রেলের ততকাল টিকিট বুক করার জন্য আগে থেকে ভ্রমণসূচী প্রস্তুত করে রাখতে হয়। এর ফলে টিকিট বুকিং এর সময় আপনাদের আর আলাদা করে সমস্ত বুকিং করতে হয়না। যাত্রীরা সেখানে সহজেই টিকিট বুক করে নিতে পারেন।

আগে থেকেই নিজে ভ্রমণসূচী প্রস্তুত এবং সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন। আর এর ফলে বুকিংয়ের সময় যাত্রীদের নাম সেখানে উল্লিখিত থাকবে। এর সাথে, তৎকাল টিকিট বুকিংয়ের সময় যাত্রীদের পুনঃ বিবরণ পূরণ করার প্রয়োজন হবে না।

train rail ticket ad

টিকিট বুক করার সাথে সাথে আপনার সামনে পেমেন্টের বিকল্প খুলে যাবে। এবার সেখানে আপনি নিজের UPI, ক্রেডিট/ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে অর্থ প্রদান করলেই ব্যাস, আপনার টিকিট রেডি। এইভাবে বুক করলে আপনার সময়ও বাঁচবে এবং সাথে হঠাৎ টিকিটের প্রয়োজন পড়লে আপনি সহজেই টিকিট পেয়ে যাবেন।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button