Indian Railways: মাটি খুঁড়তেই উঠে এল ১৫০ বছরের পুরনো রেল লাইন, হাওড়া স্টেশনে খোঁজ মিলল প্রাচীন ইতিহাস

হাওড়া (Howrah) স্টেশন আজকের নয়। ব্রিটিশ আমলে তৈরি হওয়া কয়েকটি স্টেশনের একটি হাওড়া। বহু পুরনো ইতিহাসের সাক্ষী থেকেছে এই স্টেশন। এরপর যুগের পরিবর্তনে বদলেছে সমস্তটাই। ঝাঁ চকচকে করে ফেলা হয়েছে এই স্টেশনকে। সময়ের আবেদনে এবার হাওড়াতেও বসানো হচ্ছে অত্যাধুনিক মেট্রো রেল।

আর সেই মেট্রো রেলের কাজ চলাকালীন মাটি খুঁড়তে বেরিয়ে এল জলজ্যান্ত ইতিহাস। হাওড়ার স্টেশনের ডিআরএম বিল্ডিংয়ের সামনে হাওড়া মেট্রোতে ঢোকার রাস্তা তৈরির সময় মাটি খুঁড়তেই চক্ষু চড়কগাছ কর্মীদের। একেবারে ১৫০ বছরের পুরনো রেল লাইন পাওয়া গেল মাটির নীচে!

তবে এই রেল লাইন দেখে মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষের মনে প্রশ্ন জেগেছে, ঠিক কতটা বিস্তৃত রয়েছে এই লাইন? যদিও মেট্রো রেলের তরফে পরীক্ষা করে দেখা হয়নি ঠিক কত পুরনো এই লাইন, তবে আন্দাজ করা যাচ্ছে যে, অন্তত ১৫০ বছর তো হবেই। এই ঐতিহাসিক লাইনটিকে রাখা হবে রেলের সংগ্রহশালায়।

রেল লাইনটি উদ্ধার করার পর সেটিকে পরীক্ষা করা হবে পুরাতাত্বিকদের দিয়ে। খুঁজে বের করা হবে কত পুরনো, কী ধাতু দিয়ে তৈরি, কেমনই বা ছিল সেই লাইন, সব খোঁজ চালাতে চাইছে রেল। তবে ঐতিহাসিক নিদর্শনের খোঁজ পেয়ে স্টেশনের মানুষরাও ভিড় জমাচ্ছেন সেটি দেখতে। ভিড় এতটাই বেড়ে গিয়েছে যে, RPF কেও রীতিমত বেগ পেতে হচ্ছে তা সামলানোর জন্য।

কিন্তু কীভাবে উদ্ধার হয়েছে এই লাইন? জানা যাচ্ছে যে, মেট্রো রেলের কাজ চলাকালিন মাটি খুঁড়তেই তার নিচ থেকে ধাতুর মত কিছু বেরোতে থাকে। প্রথমে অবশ্য তাদের মনে হয়েছিল যে, মাটির গভীরে হয়তো ধাতব কিছু পড়ে রয়েছে। কিন্তু খনন কার্য এগোতেই লম্বা রেল লাইনের দেখা মেলে। এমনকি কোথায় শুরু হয়েছে এই লাইন তার খুঁজে পেতে হিমশিম খান কর্মীরা।

station 1 16597522633x2

তবে জানা যাচ্ছে যে, এই ট্র্যাক উদ্ধার হওয়ায় মেট্রো রেলের কাজে কোনো বাধা পড়বে না। মেট্রো নিজের গতিতেই কাজ করে যাচ্ছে। মেট্রো রেল গঙ্গার নীচ দিয়ে ছুটতে শুরু করলে সেটাও ভারতের এক গর্বের ইতিহাস তৈরী করবে। প্রসঙ্গত হাওড়া মেট্রো সারা এশিয়ার সবচেয়ে গভীরতম মেট্রো স্টেশন হতে চলেছে। জানা যাচ্ছে প্রায় সমস্ত কিছুই তৈরি হয়ে গিয়েছে। এখন উদ্বোধন শুধু সময়ের অপেক্ষা।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button