৮ হাজার টাকা বিনিয়োগে মিলবে ৭ লাখ টাকা! দেশবাসীর জন্য দারুণ স্কিম পোস্ট অফিসের

নয়া দিল্লিঃ বর্তমানে আর্থিক সম্পত্তির পরিমাণ বাড়ানোর জন্য অনেকেই শুরু করেছেন বিনিয়োগ করতে। আর এরজন্য রয়েছে কিছু চোখ ধাঁধানো অফার। এইসব কিছুর মধ্যে গ্রাহকরা পরে যান মহা ফাঁপরে। কোনটা নেবেন কোনটা নেবেন না, এই নিয়ে নিজেদের মধ্যেই চলতে থাকে আলোচনা। অনেক সময়ই না বুঝেই করা হয়ে যায় বিনিয়োগ, ফলে থেকে যায় ক্ষতির সম্ভাবনা। এজন্য অনেকেই পছন্দ করেন নিরাপদ স্কিম। সেক্ষেত্রে রিটার্ন কম থাকলেও ঝুঁকি থাকে অনেকটাই কম।

দেশের সাধারণ মানুষ থেকে উচ্চবিত্ত সবাই পোস্ট অফিসের বিভিন্ন স্কিমগুলিতে বিনিয়োগ করতে পিছপা হন না মোটেই। তবে পোস্ট অফিসে বিনিয়োগ করার আরো একটি কারণ হলো পোস্ট অফিসের ভরসাযোগ্যতা। সমস্ত বয়সের গ্রাহকদের জন্যই পোস্ট অফিস নিয়ে আসছে বিভিন্ন রকমের স্কিম।এজন্য সবার মাঝে আজও সমান জনপ্রিয় পোস্ট অফিস।

বর্তমানে পোস্ট অফিসের প্রবীণ নাগরিকদের জন্য, তাদের সিনিয়র সিটিজেন স্কিম বেশ ভরসাযোগ্য। ঝুঁকি খুবই কম এবং রিটার্ন বেশ ভালই। এই স্কিমের আরেকটি ভরসার ব্যাপার হলো গিয়ে এই স্কিমে সরকার গ্যারান্টি দেয়। এবং এখানে বিনিয়োগের কোনো সর্বোচ্চ সীমাও নেই। এই স্কিমে বিনিয়োগ, শুরুতে পাঁচ বছরের জন্য করা গেলেও পরে তা আরও বাড়ানো যেতে পারে ৩ বছরের জন্য।

money rupee

৬০ বছর ধরে বিনিয়োগ করতে পারা যায় এই রেকারিং ডিপোজিট স্কিমে। এখানে সুদের হার ৭.৪%। তবে এই স্কিমে সাধারণ মানুষ ৫৫ বছর বয়সে বিনিয়োগ করতে পারলেও ডিফেন্স যারা কাজ করছেন তারা ৫০ বছর বয়স অবধিইপারেন বিনিয়োগ করতে। পোস্ট অফিসের এই সিনিয়র সিটিজেন স্কিমে প্রতি মাসে ৮,৩৩৩ টাকা জমা করতে থাকলে ৫ বছর পর এককালীন ৭ লক্ষ টাকা ফেরত পাওয়া সম্ভব। এই স্কিমে সুদের হার বর্তমানে ৭.৪%।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button