মাটি খুঁড়তেই উদ্ধার হল ৪ হাজার বছরের পুরনো অস্ত্র! মহাভারত যুগের রহস্য উন্মোচন হওয়ার আশা

আমাদের দেশ ভারতবর্ষে (India) মাটির নিচে এখনো রয়ে গিয়েছে জ্বলজ্যান্ত ইতিহাস। মাটি খুঁড়লেই বেরিয়ে আসে বীরদের চিত্রগাথা, ঐতিহাসিক সাম্রাজ্য এবং ভারতীয় দেবদেবীদের মূর্তি ও মন্দিরের নিদর্শন। ঠিক তেমনই এক খননকার্য চলাকালীন উঠে এল চার হাজার বছরেরও পুরনো কিছু অস্ত্র! ইতিমধ্যেই খুঁজে পাওয়া সেই সুপ্রাচীন বস্তুটি নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে আগ্রা এবং দিল্লীর প্রত্নতাত্ত্বিক দল। অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে তীরের ফলা, ছোঁড়া ইত্যাদি। কিন্তু এই অস্ত্রগুলির সাথে এমন কিছু তথ্য উঠে আসে যা অবাক করার মতো।

প্রত্নতাত্বিকরা জানাচ্ছেন যে, এই হাতিয়ারগুলি চ্যালকোলিথিক যুগের। গত ৯ জুন এই অস্ত্রগুলি খুঁজে পাওয়া গেলে চাষীরা সেগুলি নিজেদের বাড়ি নিয়ে যায়। আসলে আগ্রা সংলগ্ন কুড়াভালি থানার গণেশপুরা গ্রামের বাসিন্দা বাহাদুর সিং নিজের খামার অঞ্চলের ঢিবি কেটে সমতল করার উদ্দেশ্যে মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে আসে ওই প্রাচীন অস্ত্রশস্ত্রগুলো। সেসময় কৃষকরা নিজেদের বাড়ি নিয়ে চলে যায় সেগুলিকে।

খননকার্য চলাকালীন একটি বাক্স থেকে বিপুল পরিমাণে উদ্ধার হয় প্রাচীন সমস্ত অস্ত্রগুলো। যদিও পরে প্রশাসনিক তৎপরতায় সেগুলিকে উদ্ধার করে পুলিশ। এই প্রসঙ্গে প্রত্নতাত্ত্বিক রামকুমার অস্ত্রগুলির পরীক্ষা করে দেখেন যে সেগুলি চ্যালকোলিথিক যুগের। উদ্ধার হওয়া ৮০ টি তামার তৈরি অস্ত্রের বয়স প্রায় ৪,০০০ বছর! এছাড়া দিল্লির প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অজয় ​​কুমার যাদবের নেতৃত্বে একটি দল তদন্তের জন্য কুরভালির গণেশপুরে পৌঁছেছে।

untitled6 1656060433

৮০ টি অস্ত্রকে পরীক্ষা চালায় প্রত্নতাত্বিক দল, প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে সারা মাঠ জুড়ে নিজেদের তল্লাশি জারি রাখে তারা। তাদের ধারণা এগুলি সাধারণত তাম্রযুগের। আপাতত কৃষকের সেই দুই বিঘা জমি দখল করেছেন প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের বিজ্ঞানীরা। খননের মাধ্যমে প্রাচীন ধ্বংসাবশেষ আবিষ্কার করতে সক্ষম হয়েছেন তারা। এখন দেখার ভবিষ্যতে এখান থেকে কি রহস্য উন্মোচিত হয়।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button