হার মানবে ছাতাও! একটু পরেই দক্ষিণবঙ্গের ৭ জেলায় তুমুল দুর্যোগ, ভয়ঙ্কর অ্যালার্ট IMD-র

আপনিও কি বাড়ির বাইরে আছেন? বা বিকেলের মধ্যে বাড়ি থেকে বেরোনোর পরিকল্পনা করছেন? তাহলে সাবধান হয়ে যান এক্ষুনি। কারণ আমূল বদলে যেতে চলেছে বাংলার আবহাওয়া। এক প্রকার তোলপাড় করা আবহাওয়ার (Weather) সাক্ষী থাকতে চলেছেন বাংলার (West Bengal) মানুষজন। আর কিছুক্ষণের মধ্যেই ঝেঁপে বৃষ্টি আসছে বলে পূর্বাভাস জারি করা হলো।

বর্তমান সময়ে খাতায়-কলমে এখন শীত বিদায় নেওয়ার জন্য তৈরি হচ্ছে। ইতিমধ্যে শীতল আবহাওয়া যেন বাংলা থেকে গায়েব হয়ে গিয়েছে। সকালের দিকে একটু ঠান্ডা ঠান্ডা অনুভূত হলেও যত বেলা বাড়ছে ততই গরম আবহাওয়া জাঁকিয়ে বসছে। একটুর বেলার দিকে বাইরের থাকলে গায়ে যেন গরম আবহাওয়া কাঁটার মতো বিঁধছে। এদিকে এই শীতের বিদায় বেলায় পিছু ছাড়তে রাজি নয় নাছোড়বান্দা বৃষ্টি। যে কোনো সময়ে বইছে দমকা হাওয়া, সেইসঙ্গে নামছে বৃষ্টিও।

   

আজ বৃহস্পতিবার ব্যাপক দুর্যোগের পূর্বাভাস জারি করল আবহাওয়া দফতর (India Meteorological Department)। কিছুক্ষণের মধ্যেই কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের (South Bengal) একের পর এক জেলা যেমন নদীয়া, হুগলী, বাঁকুড়া, বর্ধমান, পুরুলিয়া, মুর্শিদাবাদ, হাওড়া, দুই ২৪ পরগনায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ ঝেঁপে বৃষ্টির সতর্কতা জারি করেছে মৌসম ভবন।

বিশেষ করে আজ পুরুলিয়াবাসীর কপালে ব্যাপক দুর্ভোগ নাচছে। বিকেলের মধ্যেই ঝড়-বৃষ্টি সব একসঙ্গে নামতে চলেছে জেলায় বলে খবর। গতকাল সরস্বতী পুজোর দিনেও এই জেলায় বিশাল বৃষ্টি হয়েছিল বলে খবর।

এখন আপনার মনেও নিশ্চিয়ই প্রশ্ন জাগছে যে তাহলে উত্তরবঙ্গের (North Bengal) কপালে কী লেখা রয়েছে? এই প্রসঙ্গে আলিপুর মৌসম ভবন জানাচ্ছে, দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, মালদহ, কোচবিহার ও জলপাইগুড়ি জেলায় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর