ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে ‘সাইক্লোন হামুন’, আবহাওয়ার রুদ্ররূপ দেখবে দক্ষিণবঙ্গ! সতর্ক করল IMD

দেশবাসীর কপালে নতুন করে দুর্যোগ নাচছে। ভারতে (India) আরেকটি ঘূর্ণিঝড়ের (Cyclone) আশঙ্কা রয়েছে। সাগরে আরেকটি টর্নেডো বা ঘূর্ণিঝড় যাই বলুন, ভ্রূকুটি দেখা দিয়েছে। যে কারণে সকলকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে আবহাওয়া অফিসের তরফে। দেশে এমনিতেই উৎসবের পরিবেশ বিরাজ করছে।

   

সেখানে নতুন করে এক ঘূর্ণিঝড় সবকিছু ওলট পালট করে দিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ প্রবল শক্তি বাড়িয়ে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘হামুন’ (Hamoon)। আর এই হামুনের প্রভাব পড়বে দেশের একের পর এক রাজ্যে বলে খবর। আইএমডি (India Meteorological Department) এক বুলেটিনে বলেছে, ‘হামুন’ আগামী কয়েক ঘণ্টায় আরও তীব্র ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে কারণ এটি বঙ্গোপসাগরে ২১ কিলোমিটার বেগে অগ্রসর হবে। ‘এরপর উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে ‘হামুন’ ধীরে ধীরে দুর্বল হয়ে ৬৫-৭৫ থেকে ৮৫ কিলোমিটার বেগে ঘূর্ণিঝড় হিসেবে খেপুপাড়া ও চট্টগ্রামের মধ্যবর্তী বাংলাদেশ উপকূল অতিক্রম করতে পারে।

অন্য আর এক বুলেটিনে বলা হয়, মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৫টায় ‘হামুন’ ওড়িশার পারাদ্বীপ থেকে ২৩০ কিলোমিটার পূর্ব-দক্ষিণ-পূর্বে, দিঘা (পশ্চিমবঙ্গ) থেকে ২৪০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ-পূর্বে, খেপুপাড়া (বাংলাদেশ) থেকে ২৮০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং চট্টগ্রাম (বাংলাদেশ) থেকে ৪১০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল। আবহাওয়া অধিদফতরের বুলেটিনে বলা হয়েছে, নিম্নচাপটি আগামী কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। এটি ২৫ অক্টোবর সন্ধ্যার মধ্যে খেপুপাড়া ও চট্টগ্রামের মধ্যে বাংলাদেশ উপকূল অতিক্রম করার সম্ভাবনা রয়েছে। এদিকে এই ঘূর্ণিঝড় হামুনের জেরে তামিলনাড়ু ও কেরালায় ভারী বৃষ্টিপাতের সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দফতর।

একই সঙ্গে ওড়িশা, মিজোরাম ও মণিপুরের উপকূলীয় এলাকায় ভারী বৃষ্টি হতে পারে। এ ছাড়া ত্রিপুরা ও আসামে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। শুধু তাই নয়, নাগাল্যান্ড, মণিপুর ও ত্রিপুরাতেও ভারী বৃষ্টি হতে পারে ২৫ অক্টোবর। একপ্রকার সকলকে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার সাক্ষী থাকার জন্য সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

cyclone koinu

ইতিমধ্যে ওড়িশা সরকার সমস্ত জেলা কালেক্টরকে যে কোনও পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকতে বলেছে। পাশাপাশি ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে নিচু এলাকা থেকে লোকজনকে সরিয়ে নিতে প্রশাসনকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। উপকূলীয় ওড়িশার অনেক জায়গায় আগামী দু’দিন হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। ঘূর্ণিঝড় ‘হামুন’ তীব্র ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে, তবে এটি ওড়িশায় কোনও বড় প্রভাব ফেলবে বলে আশা করা হচ্ছে না কারণ এটি প্রায় ২০০ কিলোমিটার দূর থেকে রাজ্য উপকূল অতিক্রম করবে। আইএমডির মহাপরিচালক মৃত্যুঞ্জয় মহাপাত্র জানিয়েছেন, বঙ্গোপসাগরে বাতাসের গতিবেগ ধীরে ধীরে ৮০-৯০ কিলোমিটার থেকে বেড়ে ১০০ কিলোমিটারে পৌঁছে জেরে পারে।